সোমবার, ২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

প্লাস্টিক মুক্ত সমাজ গঠনের লক্ষ্যে যৌথভাবে উদ্যোগ নিল স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন

News Sundarban.com :
ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০২০
news-image

 

-প্লাস্টিকের রমরমায় জর্জরিত সুন্দরবনের প্রত্যন্ত গ্রাম সহ সারা রাজ্য।সু্ন্দরবন বাঁচলে বাঁচবে মানব সমাজ। সেই সুন্দরবনও প্লাস্টিকে মরতে বসেছে। সুন্দরবন কে রক্ষা করার উদ্যোগ নিয়ে প্লাস্টিক মুক্ত সুন্দরবন গড়ার উদ্যোগ নিয়ে যৌথভাবে কর্মপ্রণালি শুরু করলো কয়েকটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন।আর অভিনব উদ্যোগে সামিল হলেন প্রত্যন্ত সুন্দরবনের মানুষজন। কি সেই উদ্যোগ?জানাগেছে শহর এলাকা সহ প্রত্যন্ত সুন্দরবনের বাজারহাটে প্রতিনিয়ত ব্যবহার হয় প্লাস্টিকের ক্যারিব্যাগ। আর সেই ব্যাগ বন্ধ করে কাগজের ঠোঙার প্রচলন যাতে বেশী করে হয় সেই উদ্যোগ নিল বারুইপুরের এক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন।শুক্রবার প্রত্যন্ত সুন্দরবন এলাকায় গিয়ে প্লাস্টিক বন্ধের উদ্যোগ নেন। আর সেই উদ্যোগে সামিল হন সুন্দরবনের বালি দ্বীপ,সাতজেলিয়া, ছোট মোল্লাখালি, আমলামেথি দ্বীপের মহিলারা।প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগ বন্ধ করে পুরনো খবরের কাগজ থেকে ঠোঙা তৈরির অভিনব উদ্যোগের সূচনা হয়।এদিন শুরুতে প্রায় ২০০ জন গৃহবধূকে ৫ কেজি করে খবরের কাগজ দেওয়া হয় ঠোঙা তৈরীর জন্য।তাছাড়াও সুন্দরবনের প্রত্যন্ত এলাকা প্রায় ১২০০ গৃহবধূ এই কাজে এগিয়ে আসার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেছেন বলে জানা যায় ৷গ্রাম্য বধুরা গৃহস্থের কাজ সামলে কেজিপ্রতি কাগজে ১৮ থেকে ২০ টাকা তাঁরা উপার্জন করতে পারবেন।মহিলারা স্বনির্ভর হয়ে গেলে তাঁরা নিজেরাই বাজার থেকে কাগজ কিনে ঠোঙা তৈরী করবেন। একদিকে যেমন প্লাস্টিক বন্ধ হবে আর অপর দিকে গ্রাম্য মহিলারা স্বনির্ভর হতে পারবেন । ইতিমধ্যে বারুইপুরের “ইচ্ছে পূরণ” , হাওড়া জেলার “শ্রীরাম সেবা সমিতি” ,উত্তর ২৪ পরগনা জেলার খড়দহের “মনন ওয়েলফেয়ার সোসাইটি” এমন অভিনব উদ্যোগ নিয়ে প্রত্যন্ত সুন্দরবনের প্লাস্টিক মুক্ত সমাজ গড়ার লক্ষ্যে কার্যক্রম শুরু করে দিয়েছেন।