বৃহস্পতিবার, ১৮ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

মারের পরিবর্তে পাল্টা মার – হরিকৃষ্ণ

News Sundarban.com :
ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২০
news-image

 

ক্যানিং-“মারের পরিবর্তে পাল্টা মার” দেওয়ার দাওয়াই দিলেন বিজেপি পূর্ব জেলার সভাপতি হরিকৃষ্ণ দত্ত।তৃণমূল কর্মীর মারে গুরুতর জখম হয় একাধিক দলীয় কর্মী। সেই সমস্ত গুরুতর জখম কর্মীরা ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। মঙ্গলবার বিকালে দলীয় কর্মীদের কে দেখতে ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে আসেন বিজেপির পূর্ব জেলার সভাপতি।আক্রান্ত দলীয় কর্মীদের কে দেখতে এসেই দ্ব্যর্থহীন ভাষায় শাসক দল কে আক্রমণ করলেন বিজেপি এই জেলা সভাপতি।তিনি দলীয় কর্মীদের কে নির্দেশ দেন সময় এসেছে। বসে থাকলে চলবে না। শাসক দলের লোকজন যদি জোর পূর্বক আক্রমণ করে মারধোর করে,তাহলে আমাদের কে সংঘবদ্ধ হয়ে আক্রমণ প্রতিহত করে পাল্টা আঘাত হানতে হবে। মারে বদলে পাল্টা মার দিলে ব্যাকফুটে পালাতে সময় নেবে না রাজ্যের এই শাসক দল।এদিন দক্ষিণ ২৪ পরগনা পূর্ব জেলা সভাপতি হরিকৃষ্ণ দত্তের সাথে অন্যান্য বিশিষ্ট বিজেপি নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ ২৪ পরগনা পূর্ব জেলা সাধারণ সম্পাদক শুভঙ্কর দত্তমজুমদার,জেলা সাধারণ সম্পাদিকা মামনী দাস, দক্ষিণ ২৪ পরগনা পূর্ব জেলা সম্পাদক সঞ্জয় নায়েক ,অসিত মন্ডল,রমেন মন্ডল,মনোজিৎ মন্ডল সহ ক্যানিং ১ মন্ডল সমিতির সভাপতি দেবু নস্কর প্রমূখ।
উল্লেখ্য গত ২২ ফেব্রুয়ারী গোসাবা ব্লকের বিজেপি নেত্রী সুলেখা সামন্তের বাড়ীতে মন্ডল কমিটির মিটিং চলছিল। অভিযোগ সেই সময় একদল তৃণমূল দুষ্কৃতি লাঠি,রড দিয়ে বিজেপি কর্মীদের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে ব্যাপক মারধোর করোটি ।গুরুতর জমখ বিজেপি কর্মীরা প্রাণ ভয়ে জীবন বাঁচানোর তাগিদে ছন্নছাড়া হয়ে বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে দলীয় কর্মীদের বাড়ীতে আশ্রয় নেন। এই সমস্ত জখম কর্মীদের মধ্যে নিরঞ্জন মিস্ত্রী নামে এক বিজেপি কর্মী সমর্থক গুরুতর জখম অবস্থায় ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।মঙ্গলবার দুপুরে জখম দলীয় কর্মী কে দেখতে এসেই বিজেপির পূর্ব জেলার সভাপতি মন্তব্য করেন মারের বদলে পাল্টা মার। আর খোদ সভাপতির মুখে এমন আক্রমণাত্মক কথা শুনে দলীয় কর্মী সমর্থকরা উজ্জীবিত হয়ে ওঠেন।