মঙ্গলবার, ২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ঘুটিয়ারী শরীফে বিষ্ফোরণে জখন ৩ শিশু ,গ্রেফতার মুল অভিযুক্ত রাজ্জাক সেখ

News Sundarban.com :
ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২০
news-image

ঘুটিয়ারী শরীফে বোমা বিষ্ফোরণে গুরুতর জখম হল তিন শিশু।আর এই বিষ্ফোরণে ঘটনায় এলাকা ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায়।ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার বিকালে জীবনতলা থানার ঘুটিয়ারী শরীফ প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্র রোডে।বোমার আঘাতে গুরুতর জখম শিশুদের কে স্থানীয়রা তড়িঘড়ি রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ঘুটিয়ারী শরীফ প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করেন।তিন শিশুর শারীরিক অবস্থা মারাত্মক ভাবে আশাঙ্কা জনক হলে সাথে সাথেই তাদের কে কলকাতার হাসপাতালে স্থানান্তরিত করেন চিকিৎসকরা।অন্যদিকে মুল অভিযুক্ত রাজ্জাক সেখ কে স্থানীয়রা ধরে ফেললেও ছাত্তার হালদার পালিয়ে গা ঢাকা দেয়।স্থানীয়রা রাজ্জাক কে পুলিশের হাতে তুলে দেয়।খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসেন ক্যানিং মহকুমা পুলিশ আধিকারীক দেবী দয়াল কুন্ডু ও জীবনতলা থানার আইসি সুভাষ ঘোষ ও ঘুটিয়ারী শরীফ ফাঁড়ির ওসি সমরেশ ঘোষ। স্থানীয় সুত্রে জানাগেছে এদিন বিকালে স্থানীয় রাজ্জাক সেখ ও ছাত্তার হালদারের বাড়ীতে আচমকা বিকট শব্দে কেঁপে ওঠে গোটা এলাকা। পরপর বিষ্ফোরণ হয় তিনবার। স্থানীয় বাসিন্দার আতঙ্কে দৌড়ঝাঁপ শুরু করেন।বেশকিছু লোকজন বিষ্ফোরণ স্থলে গিয়ে দেখতে পান রোহিত সেখ(৭),মোহিত সেখ(১২),জুলফিকার লে (৫) তিনজন শিশু ছিন্নভিন্ন হয়ে চিৎকার করছে। স্থানীয়রা উদ্ধার করে চিকিৎসা কেন্দ্রে নিয়ে।আহত শিশুদের মধ্যে মোহিত সেখের অবস্থা আশাঙ্কা জনক।
উল্লেখ্য সমগ্র রাজ্যের মধ্যে ঘুটিয়ারী শরীফ এলাকা বিভিন্ন লোকজন ভাড়াটিয়া হিসাবে বসবাস করেন। সেই সুত্রে এই ঘুটিয়ারী শরীফ এলাকায় দুষ্কৃতিদের ব্যাপক রমরমা।আর সেই দুষ্কৃতি মূলক কাজে জড়িত রাজ্জাক সেখ। রাজ্জাক তার বাড়ীতে বোমা তৈরীর মালমশলা নিয়ে এসে বোমা তৈরী করে বলে এলাকার বাসিন্দাদের অভিযোগ।আর এই রাজ্জাকের বাড়ীতে বেশ কিছু ভাড়াটিয়াও বসবাস করতো। এদিন বিকালে রাজ্জাক তার বোমা গুলি ঘরে একপাশে বস্তা ঢাকা দিয়ে রেখেছিল ।জনা চারের শিশু বল ভেবে সেই বোমাগুলি নিয়ে খেলার চেষ্টা করছিল। বোমার গায়ে হাত লাগতেই বিকট বিষ্ফোরণে কেঁপে ওঠে সমগ্র এলাকা। ছিন্নভিন্ন হয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় ছড়িয়ে পড়ে তিন শিশু।পুলিশ বেশকিছু বোমা ও বোমা তৈরীর সরঞ্জাম উদ্ধার করে সেগুলিকে নিষ্ক্রীয় করে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।