সোমবার, ২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

৫ লাখ টাকার তেজপাতা বিক্রি করেন  গ্রামের এই কৃষক

News Sundarban.com :
ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০২০
news-image

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার কাদিরকোল গ্রামের কৃষক জয়নুদ্দিন খাঁ তেজপাতা চাষ করে স্বাবলম্বী হয়েছেন। মাত্র ৪০ হাজার টাকা ব্যয় করে বছরে প্রায় ৫ লাখ টাকার তেজপাতা বিক্রি করেন তিনি।  কৃষক জয়নুদ্দিন বলেন, ২০০৮ সালে তিনি মাত্র এক বিঘা জমিতে ১০০ গাছ লাগানোর মাধ্যমে এই চাষ শুরু করেছিলেন। বর্তমানে তাঁর চার বিঘায় ৪০০ গাছ রয়েছে। এ ছাড়া তাঁর এই চাষ দেখে তাঁরই গ্রামের আরও দুই কৃষক বাণিজ্যিকভাবে তেজপাতার চাষ শুরু করেছেন।

উপজেলার সুন্দরপুর-দুর্গাপুর ইউনিয়নের কাদিরকোল গ্রামে গিয়ে কথা হয় কৃষক জয়নুদ্দিনের সঙ্গে। তিনি জানান, ২০০৭ সালে তিনি ভারতে বেড়াতে গিয়েছিলেন। সেখানে এই তেজপাতার চাষ দেখেন। এই চাষ দেখে তাঁর খুব আগ্রহ হয় তেজপাতা চাষের। কিন্তু কোথাও চারা পাচ্ছিলেন না। এমন সময় তাঁর এক বন্ধু খবর দেন এই চারা খুলনার বেজেরডাঙ্গা এলাকায় পাওয়া যায়। পরে ২০০৮ সালে বেজেরডাঙ্গা থেকে চারা নিয়ে আসেন। জয়নুদ্দিন জানান, ওই বছর ২০০ টাকা পিস দরে ১০০ চারা ক্রয় করেন। এগুলো বাড়ির পাশে অপেক্ষাকৃত জঙ্গল আকৃতির জমিতে রোপণ করেন। এরপর পরিচর্যা করতে থাকেন ওই গাছগুলো। এভাবে চার বছর পেরিয়ে গেলে গাছের ডালে ডালে পাতা ভরে যায়। তখনই পাতা ভাঙতে শুরু করেন। সেই থেকে তিনি প্রতিবছর দুবার গাছ থেকে পাতা ভেঙে বিক্রি করেন। পাশাপাশি এটি লাভজনক হওয়ায় আরও গাছ লাগিয়েছেন। বর্তমানে তাঁর চার বিঘা জমিতে ৪০০ তেজপাতাগাছ রয়েছে। ৪৬ শতাংশে বিঘা হিসাবে প্রতি বিঘায় চারা রোপণ করা যায় ১০০টি। এই চাষ অপেক্ষাকৃত জঙ্গল পেরিয়ে ভালো চাষযোগ্য জমিতেও ছড়িয়ে দিয়েছেন তিনি।