বৃহস্পতিবার, ২৫শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

গোসাবায় তৃণমূলের কর্মী সম্মেলন

News Sundarban.com :
ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০২০
news-image

গোসাবা – বুধবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার গোসাবা বিধানসভা কেন্দ্রের রবীন্দ্র শিশু উদ্যান মাঠে তৃণমূলের অঞ্চলিক কর্মী সম্মেলনের আয়োজন হয়। ২০২১ সালে রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে এই সম্মেলন।এদিনের কর্মী সম্মেলন উপস্থিত ছিলেন জেলা তৃণমূলের সভাপতি তথা রাজ্যসভার সাংসদ শুভাশিস চক্রবর্তী,গোসাবা বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক জয়ন্ত নস্কর, জেলা পরিষদের বিদ্যুৎ কর্মাধ্যক্ষ তথা ক্যানিং-১ ব্লক তৃণমূলের সভাপতি শৈবাল লাহিড়ী,গোসাবা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি অচিন পাইক,১৪ টি গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান,উপ প্রধান,গ্রামসভার সদস্য,পঞ্চায়েত সমিতির কর্মাধ্যক্ষ,পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য প্রমুখ।এদিনের কর্মী সম্মেলনে জেলা তৃণমূলের সভাপতি তথা রাজ্য সভার সাংসদ শুভাশিস চক্রবর্তী তৃণমূলের কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন ২০২১ সালে রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন।তাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করুন।মানুষের বাড়ি গিয়ে মা মাটি মানুষের সরকারের উন্নয়নমূলক কাজগুলি তুলে ধরুন।মানুষকে সঙ্গে নিয়ে উন্নয়নমূলক কাজ করুন।মানুষের সঙ্গে জন সংযোগ বেশী করে বাড়াতে হবে।জেলা তৃণমূলের সভাপতি তথা রাজ্য সভার সাংসদ শুভাশিস চক্রবর্তী আরও বলেন দীর্ঘ ৩৪ বছরের বাম অপশাসনের পর জননেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে ২০১১ সালে রাজ্যে এসেছিল পরিবর্তন। ২০ মে দুপুর একটা বেজে এক মিনিটে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিয়ে ছিলেন সকলের প্রিয় নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।তারপর ২০১৬ সালে বাংলার মানুষের বিপুল আশীর্বাদ নিয়ে আবার মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেয় সকলের প্রিয়নেত্রী তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।তিনি বাংলার মানুষের জন্যে দিন রাত পরিশ্রম করে একের পর এক বাংলা জুড়ে উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড করেই চলেছে যা বাংলার মানুষ চোখে দেখতে পারছে।এদিন তিনি রাজ্যের একগুচ্ছ প্রকল্প গুলি তুলে ধরেন।পাশাপাশি তিনি তুলে ধরেন তফশিলি ও আদিবাসীদের জন্য ১০০০ টাকা করে পেনশন দেওয়া হবে।যাদের ৬০ বছর বয়স হয়েছে এবং গরীব মানুষের জন্য ৭৫ ইউনিট বিদ্যুতের বিল দিতে হবে না।
গোসাবা কেন্দ্রের বিধায়ক জয়ন্ত নস্কর বলেন রাজ্যের ২০২১ সালে রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে এই জেলার সবকটি আসনে তৃণমূলের প্রার্থীরা জয়ী হবে মানুষের আশীর্বাদে।সিপিএম,আরএসপি, কংগ্রেস সাইনবোর্ডে পরিণত হয়েছে।দিল্লীর বিধানসভা নির্বাচনে আম আদিম পার্টি কাছে বিজেপির গোহারা হেরেছে।দিল্লীর মানুষ বিজেপির বিভাজনের রাজনীতির যোগ্য জবাব দিয়েছে।এবার ২০২১ সালে বাংলার রাজনৈতিক সচেতন মানুষও ঠিকই একই ভাবে যোগ্য জবাব বিজেপিকে দেবে।রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরিস্কার বলে দিয়েছে বাংলায় কোন এনআরসি, সিএএ,এনপিআর হবে না।এমনকি এ বিষয়ে বিধানসভায় প্রস্তাব পাশ করেছে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী।এদিকে অঞ্চলিক কর্মী সম্মেলন প্রায় ১০ থেকে ১২ হাজার তৃণমূলের কর্মী উপস্থিত ছিলেন।তবে মহিলাদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো।