বুধবার, ২৪শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

অপরিচিত অসুস্থকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে গেল ৪ যুবক

News Sundarban.com :
জানুয়ারি ২৩, ২০২০
news-image

একে হাড় কাঁপানো শীত। তারপর খোলা আকাশের নীচে পড়ে বছর ত্রিশের এক অপরিচিত যুবক। মুখ ভর্তি দাড়ি,দীর্ঘ প্রায় একমাস ধরেই জরাজীর্ণ অবস্থায় পথে ধারে পড়ে রয়েছে।ঘটনাস্থল দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার বাসন্তী ব্লকের আমঝাড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের ৭ নম্বর করমদিনীবাটী।পথচারী সহ স্থানীয় লোকজন যখন যে যা খেতে দেন,সেই খাবার খেয়েই মৃতপ্রায় অবস্থায় পড়েছিল রাস্তার পাশে।এমন ঘটনার সাক্ষী হাজার হাজার পথচারীরা থাকলেও,এই যুবকের গায়ের দুর্গন্ধ আর জরাজীর্ণ অবস্থা দেখে এড়িয়ে চলে যায় সকলেই।সকলে দায়িত্ব এড়িয়ে গেলেও কলকাতায় দীনমজুরের কাজ করা চার যুবক সামির নাইয়া,মেহেবুব খান,রাকিব সেখ,জাহির নাইয়া’রা রাস্তার পাশে পড়ে থাকা জরাজীর্ণ যুবকের করুণ পরিস্থিতি দেখে তার বাড়ীর ঠিকানা জানার চেষ্টা করেছিল। স্থানীয় এই চার যুবক।কিন্তু সে সব উত্তর না পেয়ে হতাশ হয়ে এলাকার চার যুবক প্রতিদিনই পালা করে এই যুবক কে রাস্তার পাশে তাকে খাবার দিয়ে যায়।আবার শীতের কষ্ট থেকে মুক্তি দিতে চার বন্ধু মিলে একটি শীতের কম্বল কিনেও তুলে দেয় এই অপরিচিত যুবক কে।


মঙ্গলবার রাতে চার বন্ধু মিলে অপরিচিত যুবক কে খাবার দিতে যায়।অন্যান্য দিনের মতো খাবার হাতে না নিয়ে অচৈতন্য অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে চারবন্ধু।অগত্যা চারবন্ধু এই যুবক কে রাস্তার পাশ থেকে তুলে নিয়ে যায় চিকিৎসার জন্য। প্রথমে সরবেড়িয়া একটি মিশনারী হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে ফেরত দেয় জরাজীর্ণ যুবককে। হতাশ হয়ে পড়ে চার বন্ধু।সেখান থেকে হতাশ হয়ে ফিরে আসে তারা।এরপর রীতিমতো গাড়ী রিজার্ভ করে জরাজীর্ণ যুবককে নিয়ে চিকিৎসার জন্য সটান হাজীর হয় ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে। সেখানে শুরু হয় চিকিৎসা। ডাক্তার বাবুদের কথা মতো বেশকিছু ওষুধপত্রও কিনে দেয় চারবন্ধু।
বর্তমানে ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এই যুবক।