বৃহস্পতিবার, ২৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

প্রচণ্ড ঠান্ডা ও রিয়েল কাশ্মীর:মোহনবাগানের সামনে ছিল দুই প্রতিদ্বন্দ্বী

News Sundarban.com :
জানুয়ারি ৫, ২০২০
news-image

মোহনবাগানের সামনে ছিল দুই প্রতিদ্বন্দ্বী। এক, রিয়েল কাশ্মীর। দুই, কাশ্মীরের প্রচণ্ড ঠান্ডা। দুই প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধেই সাহস নিয়ে লড়ল সবুজ-মেরুন ব্রিগেড। দুর্দান্ত জয়ও এল। আগেই আন্দাজ করা হয়েছিল, ম্যাচের দিন শ্রীনগরের তাপমাত্রা থাকতে পারে ২-৩ ডিগ্রির কাছাকাছি। রবিবার সেই আন্দাজ ছাপিয়ে ঠান্ডা পড়ল। তাপমাত্রা হিমাঙ্কের নিচে পৌঁছে গেল। হল তুষারপাত। কিন্তু মোহনবাগন ফুটবলারদের ইস্পাতকঠিন মানসিকতার সামনে বরফ গলে জল হল। রিয়েল কাশ্মীরের বিরুদ্ধে ২-০ ব্যবধানে জিতে তিন পয়েন্ট ছিনিয়ে নিল কিবু ভিকুনার দল।

মোহনবাগানে সদ্য যোগ দিয়েছেন সেনেগালের ফুটবলার বাবা দিওয়ারা। ফলে তাঁর দিকেই যেন নজর ছিল ক্লাব কর্তা ও সমর্থকদের। বাবা দিওয়ারা হতাশ করলেন না। প্রচন্ড ঠান্ডায় তিনি স্বচ্ছন্দে খেললেন। বল দখল থেকে শুরু করে দৌড়, সবেতেই পাশ মার্ক আদায় করলেন তিনি। দলের সঙ্গে মানিয়ে নিতে কিছুটা সময় পেলে মোহনবাগানের জন্য কার্যকরী ভূমিকা নিতে পারেন দিওয়ারা। তবে এদিন জয়ের কাণ্ডারি বেইতিয়া। তাঁর ভলিতে করা গোলেই ৭২ মিনিটে এগিয়ে যায় মোহনবাগান। এক মিনিটের মাথায় ফের গোল। এবার নাওরেম।

নতুন বছরের শুরুতেই দুর্দান্ত জয় পেল মোহনবাগান। ঘরের মাঠে বরাবরই শক্তিশালী দল রিয়েল কাশ্মীর। তাদের বিরুদ্ধে আই লিগে এই জয় মোহনবাগানকে বাড়তি আত্মবিশ্বাস দেবে, সে কথা বলাই যায়। এত ঠান্ডায় খেলতে নেমেও এদিন কিবু ভিকুনার ছেলেরা ভুল পাস খেলেননি বললেই চলে। ৯০ মিনিটের গোছানো ফুটবল। আর তাতেই দুই প্রতিপক্ষকে হারিয়ে কাশ্মীরে ফুটল বাগানের ফুল।