রবিবার, ২১শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সিডনিতে স্টিভ স্মিথ হয়ে গেলেন রাহুল দ্রাবিড়ের মতো

News Sundarban.com :
জানুয়ারি ৩, ২০২০
news-image

এক, দুই, তিন…সাত..দশ…। ঠিক কতগুলো বল খেলার পর তিনি এক রান করবেন! হা হুতাশ করে বসে ছিলেন দর্শকরা। টেস্ট ক্রিকেটে একটা সময়  রাহুল দ্রাবিড় এমনই করতেন। শুরুতে জাঁকিয়ে বসতে চাইতেন। উইকেট পরখ করতেন। বোলারদের শক্তি-দুর্বলতা মেপে নিতেন। আর এমন করতে গিয়ে তাঁর খাতা খুলতে দেরি হত বটে! কিন্তু তিনি স্বমহিমায় খেলে যেতেন। দিনের শেষে দেখা যেত, দ্রাবিড় বড় ইনিংস খেলে মাঠ ছাড়ছেন। সিডনিতে স্টিভ স্মিথ হয়ে গেলেন রাহুল দ্রাবিড়ের মতো। ১৮২ বল খেলে তিনি করলেন ৬৩। তবে রেকর্ড হয়ে রইল অন্য জায়গায়।

মার্নাস ল্যাবুশানের সঙ্গে ১৫৬ রানের পার্টনারশিপ খেললেন তিনি। তবে প্রথম রান করতে স্মিথ খেললেন ৩৯টি বল। সাড়ে ছয় ওভার ও ৪৬ মিনিট পর স্টিভ স্মিথ রানের খাতা খুলতে পারলেন এদিন। নিউ জিল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজের তৃতীয় টেস্টের প্রথম দিন স্টিভ স্মিথের এমন মন্থর গতির ব্যাটিং নিয়ে বিস্তর আলোচনা হল। সাম্প্রতিক অতীতে অবশ্য বারবার আলোচনার কেন্দ্রে ছিলেন স্মিথ। কখনও অদ্ভুতভাবে বল জাজমেন্ট করে! কখনও আবার দাঁতে দাঁত চেপে উইকেটে পড়ে থেকে।

এর আগে মেলবোর্নে ২০০৪-এ ভারতের বিরুদ্ধে প্রথম রান করতে ১৮ বল লেগেছিল স্মিথের। ওটাই ছিল এখনও পর্যন্ত তাঁর সর্বোচ্চ বল খেলে রানের খাতা খোলার রেকর্ড। তবে এদিন সেটা ভেঙে গেল। সেবার ১৯২ রান করেছিলেন স্মিথ। এদিন অবশ্য ৬৩ রান করে থামলেন। নীল ওয়াগনারের বলে প্রথম রান নেওয়ার পর হাততালি দিয়ে উঠেছিল সিডনির গ্যালারিতে থাকা দর্শকরা। স্মিথও তাঁদের অভিবাদন গ্রহণ করেন ব্যাট তুলে। এর আগে ১৯৯১ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ডেভিড বুন এতগুলো বল খেলে খাতা খুলেছিলেন। অজি ব্যাটসম্যান হিসাবে বুনের রেকর্ড ভেঙে দিলেন স্মিথ।