মঙ্গলবার, ২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কেক এর সম্ভার নিয়ে দোকান সাজিয়েছেন দোকানীরা

News Sundarban.com :
ডিসেম্বর ২৪, ২০১৯
news-image

মঙ্গলবার রাত পোহালেই  ২৫ ডিসেম্বর বড়দিন। আর এই বড়দিনের হরেক রকমের কেক এর সম্ভার নিয়ে জমে উঠেছে কেক এর বাজার। দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলার ক্যানিংয়ে প্রতি বছরের ন্যায় এ বছর ও জমে উঠেছে কেক বাজার। চামস কেক থেকে শুরু করে ফ্রুট কেক, বাটার কেক থেকে শুরু করে বাটিকেক।কি নেই বড়দিনের কেক এর বাজারে।২৫ টাকা থেকে শুরু করে ১০০০-১২০০টাকা দামের কেক এর সম্ভার নিয়ে দোকান সাজিয়েছেন দোকানীরা।

বড় দিনে কেক খান না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়াই দায়। শুধুমাত্র খ্রিষ্টান ধর্মাবলম্বীরাই নন।হিন্দু, মুসলিম, শিখ, জৈন সকল ধর্মের মানুষই প্রভু যীশু খ্রীষ্টের জন্মদিনে অর্থাৎ বড়দিনে কেক খেয়ে থাকেন।এছাড়াও সমাজের সকল স্তরের সাধারণ মানুষের কথা মাথায় রেখেই তাই প্রতি বছর বিভিন্ন ধরনের, বিভিন্ন দামের কেক নিয়ে কেক বাজার বসে দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলার ক্যানিং বাজারে। পৃথিবীর বৃহত্তম ব-দ্বীপ সুন্দরবনের প্রবেশদ্বার ক্যানিং শহর।আর এই ক্যানিং শহর দিয়েই প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ সুন্দরবনের বিভিন্ন প্রান্তে যাতায়াত করে থাকেন।সেই কারণে প্রতিবছর বড়দিনের ছুটিতে বাড়িতে যাতায়াতের ফাঁকে এই ক্যানিং শহরের কেক বাজার থেকে বিভিন্ন স্বাদের, বিভিন্ন দামের কেক কিনে বাড়িতে নিয়ে যান প্রায় সকলেই।

রাহুল মন্ডল,কালিদাস দেবনাথ,দেবব্রত মুখার্জী,সায়ন পাহাড়ীরা বলে “এই ক্যানিং শহর দিয়ে প্রতিদিনই যাতায়াত করে থাকি। ক্যানিং বাজারে ভালো কেক পাওয়া যায়। সামনেই বড়দিন। সেই উপলক্ষে ক্যানিং বাজার থেকে কেক কিনলাম।”

উল্লেখ্য এই এলাকার সাধারণ মানুষের চাহিদা মেটাতেই অন্যান্য বছরের মত এ বছরও বড়দিনে বিভিন্ন ধরনের সম্ভার নিয়ে হাজির হয়েছেন কেক বিক্রেতারা। এ বিষয়ে এক কেক বিক্রেতা অসীম মালাকার বলেন “প্রতিবছরই আমরা এই ক্যানিং বাজারে বড়দিনের কেক বিক্রি করে থাকি। সস্তা থেকে দামি, ফ্রুট কেক থেকে শুরু করে বাটার কেক সব ধরনের কেক রয়েছে আমাদের দোকানে। এবছর এই কেকের বাজারে কেক এর চাহিদা প্রচুর থাকায় বাজার যথেষ্ট ভালো”।