সোমবার, ২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

গড়িয়াহাটে ডাকাতির উদ্দেশ্যে খুন বৃদ্ধা

News Sundarban.com :
ডিসেম্বর ১২, ২০১৯
news-image

এলোমেলো গোটা ঘর, বিছানায় পরে থাকা দেহ ভেসে গিয়েছে রক্তে। ফাঁকা বাড়ি থেকে ফের এক বৃদ্ধার মৃতদেহ উদ্ধার করল পুলিস। এবার ঘটনাস্থল গড়িয়াহাট। বৃহস্পতিবার সকালে বাড়ির পরিচারিকা কাজ করতে এলে ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসে। খবর দেওয়া হয় পুলিসে। পুলিস এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে। মৃতার নাম ঊর্মিলা ঝুন্ড

সূত্রের খবর, বুধবার রাত সাড়ে দশটা নাগাদ বৃদ্ধাকে খাবার দিতে আসে তাঁর নাতনি। তারপর বৃদ্ধার সঙ্গে কথা হয়নি কারও। এরপর বৃহস্পতিবার পরিচারিকা এসে দেখেন মূল দরজা ভেজানো রয়েছে। দরজা খুলে ঢুকতেই তিনি দেখেন একতলার একটি ঘরের বিছানার ওপর চিৎ হয়ে পড়ে রয়েছেন বৃদ্ধা। তলপেট আড়াআড়ি কাটা, গলাতেও ক্ষতের চিহ্ন। বিছানায় ধস্তাধস্তির ছাপও স্পষ্ট। প্রতিবেশী ইন্দ্রনীল চন্দ্র জানিয়েছেন, জানালা সরাতেই দেখা যায়, বিছানায় পড়েছিল দেহ।

স্থানীয় সূত্রে খবর, গড়িয়াহাটের টু পি গড়চা রোডের দোতলা বাড়িতে থাকতেন বছর পঁয়ষট্টির ঊর্মিলা ঝুন্ড। বছর কয়েক আগে বড় ছেলে মারা যাওয়ার পর ছেলে, বৌ ও নাতি নাতনিদের নিয়ে সংসার ছিল উর্মিলাদেবীর। এদিন বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগেই ঘটনাটি ঘটেছে। ফরেনসিক ও হোমিসাইড শাখা তদন্ত শুরু করেছে। প্রাথমিক তদন্তে পুলিসের অনুমান ডাকাতির উদ্দেশ্যেই খুন করা হয়েছে বৃদ্ধাকে। যদিও অস্বাভাবিক এই মৃত্যুকে ঘিরে উঠছে একাধিক প্রশ্ন।

ঘটনাকে কেন্দ্র করে আতঙ্ক ছড়িয়েছে এলাকায়। স্থানীয়দের অভিযোগ, এলাকায় অসামাজিক কাজকর্ম চলে। পাশাপাশি বেড়ে চলেছে বহিরাগতদের অবাধ যাতায়াত। সিসিটিভি নেই। এমনকী রাতে পর্যাপ্ত আলোও থাকে না। এ বিষয়ে বারংবার থানাতে ডেপুটেশন দিয়েও কাজ হয়নি বলেই জানিয়েছেন এলাকার বাসিন্দারা। তাঁদের অভিযোগ গত 8 ডিসেম্বর গড়িয়াহাট থানাতে ডেপুটেশন দিতে গেলে তা নিতে অস্বীকার করে পুলিস।