মঙ্গলবার, ২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সংসদ চত্বরে গাড়ি থেকে নেমেই পড়িমড়ি করে দৌঁড় দিলেন রেলমন্ত্রী

News Sundarban.com :
ডিসেম্বর ৪, ২০১৯
news-image

সংসদ চত্বরে গাড়ি থেকে নেমেই পড়িমড়ি করে দৌঁড় দিলেন রেলমন্ত্রী। আশেপাশের সকলেই তখন বিস্মিত। আসলে সংসদে নির্ধারিত সময়ে ঢুকতে দেরি করে ফেলেছিলেন  পীযূষ গোয়েল। সে কারণেই দৌড়ে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সংসদে ঢোকার চেষ্টা করলেন। ওই ছবিটিই ভাইরাল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

বেসরকারি অফিসে ‘লেট’ করলে কাটা যায় মাইনে। অথবা সইতে হয় বসের মুখ ঝামটা। আর তাই অফিসে টাইমে বেসরকারি অফিসের লোকজনের দৌড় অফিসপাড়ার পরিচিত ছবি। সেই ছবিই এবার সংসদে। দেরি করায় ছুট দিলেন খোদ রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল। কেন?

বুধবার সকালে মন্ত্রিসভার বৈঠক ডাকা হয়েছিল। ওই বৈঠকে আমন্ত্রিত ছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীরা। সেখানে হাজির ছিলেন রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েলও। আবার সকাল ১১টায় লোকসভার অধিবেশনে প্রশ্নোত্তর পর্বও ছিল। সেখানে রেলমন্ত্রক সংক্রান্ত সাংসদদের প্রশ্নের উত্তর দিতে হত পীযূষ গোয়েলকে। কিন্তু মন্ত্রিসভার বৈঠকে বেশি সময় লেগে যায়। দেরি করে ফেলেন পীযূষ। আর প্রশ্নোত্তর পর্বে রেলমন্ত্রক সংক্রান্ত প্রশ্নের উত্তর দিতেই হত তাঁকে। সে কারণে সংসদ চত্বরে নেমেই দৌড় দেন পীযূষ গোয়েল।

গুজরাটের বিজেপি সাংসদ প্রভু বসাবা ছবি দিয়ে টুইট করেন, প্রশ্নোত্তর পর্বে দেরি যাতে নয়, সেজন্য নতুন ভারতের প্রাণবন্ত রেলমন্ত্রী মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর দৌড়ে সংসদে ঢুকলেন।

রেলমন্ত্রীর দৌড়ের প্রশংসা ও সমালোচনা দুই-ই হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। বিজেপি সাংসদ রবি কিসানের টুইট, আপনাকে সেলাম।

কেউ লিখেছেন, ওনার কাজের ধরন, দায়বদ্ধতা, সময়ানুবর্তিতা প্রশংসনীয়।

কেউ লিখেছেন, নেতা শিক্ষিত হলে সময়ের কাজ সময়ে শেষ করেন।

হাসিঠাট্টাও হয়েছে তুমুল। কেউ লিখেছেন, জেনারেল বগির নিজের আসন পেতে দৌড় দিচ্ছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।

কারও কটাক্ষ, ইশ! যদি ওনার মতো সময়ে ট্রেন পৌঁছত।

কারও টুইট, সাংবাদিকদের প্রশ্ন এড়াতে পালাচ্ছেন গোয়েল।

এদিন লোকসভায় ভারতীয় রেলে বিদেশি বিনিয়োগের পরিসংখ্যান পেশ করেন পীযূষ গোয়েল।