মঙ্গলবার, ২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিখর ধাওয়ানের চোট, টি-টোয়েন্টি সিরিজে সুযোগ পেয়ে গেলেন সঞ্জু স্যামসন

News Sundarban.com :
নভেম্বর ২৮, ২০১৯
news-image

শিখর ধাওয়ানের চোট, আর তাতেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি সিরিজে সুযোগ পেয়ে গেলেন সঞ্জু স্যামসন। বাংলাদেশের বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি স্কোয়াডে থাকলেও একটি ম্যাচেও প্রথম একাদশে সুযোগ পাননি সঞ্জু স্যামসন। ক্যারিবিয়ানদের বিরুদ্ধে ফের সুযোগের অপেক্ষায় রয়েছেন তিনি। তবে ধারাবাহিকতার তত্বে বিশ্বাসী নন সঞ্জু। বরং বোলারদের ওপর কর্তৃত্ব করতে ভালোবাসেন তিনি। সেই সঙ্গে তিনি জানিয়ে দিলেন দলের প্রয়োজনে উইকেট কিপিং করতেও তিনি প্রস্তুত।

সমালোচকরা বরাবরই বলে এসেছেন ধারাবাহিকতাই একটা বড় ইস্যু সঞ্জু স্যামসনের ক্ষেত্রে।  কোচ রবি শাস্ত্রীও ইঙ্গিত দিয়ে রেখেছেন, অস্ট্রেলিয়ার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য ভারতীয় দলে একটা জায়গা ফাঁকা রয়েছে সেটা হল একজন ওপেনার যে কিপিং করতে পারবে। অনেকেই বলছেন এই জায়গাটা নাকি সঞ্জু স্যামসনেরই।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি দলে সুযোগ পাওয়ার পর সঞ্জু স্যামসন জানান, ” আমি কখনও ওটা (পড়ুন ধারাবাহিকতা) নিয়ে ভাবিনি।  যেটা আমি বুঝেছি যে আমি একটু অন্যধরণের ব্যাটসম্যান। আমি মনে করি যে মাঠে নেমে বোলারদের ওপর কতৃত্ব করব। এটাই আমার স্টাইল। আর তাতেই আমি বোলারদের ওপর কতৃত্ব করতে পারি। কিন্তু যদি আমি ধারাবাহিকতার লক্ষ্যে হাঁটি তাহলে আমি নিজের স্টাইল হারাব। আমি নিজের ব্যাটিং স্টাইল বদলাতে পারব না। ”

২৫ বছরের সঞ্জু স্যামসন কেরালার সীমিত ওভারের ক্রিকেটে নিয়মিত উইকেটকিপার। এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “আমি কেরালার হয়ে সাদা বলে গত পাঁচ ছয় বছর ধরে কিপিং করছি। আমি রনজি ট্রফিতেও কিপিং করেছি। আমি সবসময়ই নিজেকে প্রস্তুত রাখি দলের প্রয়োজনে। যেমন বলে তেমন করি। আইপিএলেও আমি দলের প্রয়োজনে কিপিং করেছি। আবার ফিল্ডার হিসেবেও নিজেকে তৈরি রাখি। আমি নিজেকে উইকেটকিপার এবং ফিল্ডার হিসেবে প্রস্তুত রাখি। কারণ কে জানে কখন দলের কী প্রয়োজনে কাজে লাগে।”