মঙ্গলবার, ২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

অজয় দেবগন এবং কাজলের বিয়ের ২০ বছর পার

News Sundarban.com :
নভেম্বর ২৭, ২০১৯
news-image

১৯৯৯ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি অজয় দেবগণের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধেন কাজল। নিজের বাড়ির ছাদে গোপনে অজয়ের সঙ্গে সাতপাকে বাঁধা পড়েন বলিউডের এই বাঙালি অভিনেত্রী। বিয়ের পর কেটে গিয়েছে ২০ বছর। তাও নিজেদের ভালবাসাকে অক্ষত রেখে সংসার করে যাচ্ছেন অজয় দেবগন এবং কাজল। কিন্তু অজয় দেবগনকে বিয়ে করবেন, বাড়িতে এই কথা জানালে, তাঁর সিদ্ধান্ত কি মেনে নেওয়া হয় প্রথমে?

অজয়ের সঙ্গে বিয়ের বিষয়ে সম্প্রতি সংবাদমাধ্যমের সামনে মুখ খোলেন কাজল। সেখানে তিনি বলেন, অজয়কে ভালবাসেন এবং তাঁকে বিয়ে করতে চান। বাড়িতে এ কথা জানালে, তাঁর বাবা প্রথমে কথা বলা বন্ধ করে দেন। অজয়ের সঙ্গে কাজলের বিয়ের সিদ্ধান্ত অভিনেত্রীর বাবা প্রথমে মেনে নেননি বলে জানান কাজল।

অজয় দেবগন জানান, বিয়ের পর ২০ বছর পার করে ফেলেছেন তাঁরা। তাঁদের সুখী দাম্পত্যের চাবিকাঠি লুকিয়ে রয়েছে দুজনের বোঝাপড়ার মধ্যে। তাঁরা কেউ একে অপরের ব্যক্তিগত বিষয়ে মাথা ঘামান না। তাঁরা একটি বড় ঘরের মাঝে বসে দীর্ঘক্ষণ ধরে নিজের কাজ করে গেলেও, কেউ কারও উপর বিরক্ত হন না। শুধু তাই নয়, কাজের সময় কেউ কারও সঙ্গে কথা না বললেও, দুজনের কেউ বিরক্ত হন না বলেও জানান অজয় দেবগন। সেই কারণেই বিয়ের পর ২০ বছর কেটে গেলেও, বলিউডে এখনও তাঁদের সুখী দম্পতি হিসেবেই চিহ্নিত করা হয়।

বিয়ের ২০ বছর উপলক্ষে গত ২৬ নভেম্বর কাজল ঘোষণা করেন, ভক্তরা তাঁকে যা ইচ্ছা তাই জিজ্ঞাসা করতে পারেন। এরপরই কাজলকে একের পর এক প্রশ্ন করতে শুরু করেন তাঁর ভক্তরা। কখনও শহরুখকে কি আপনি বিয়ে করতেন বলে প্রশ্ন করা হয় তাঁকে। আবার কখনও অজয় না শাহরুখ, তাঁর প্রিয় সহঅভিনেতা কে বলে প্রশ্ন করা হয়। আবার কখনও অজয় দেবগন যখন নাইশা এবং যুগকে বেশি ভালবাসেন, সেই সময় তাঁর খারাপ লাগে কি না বলেও জিজ্ঞাসা করা হয় কাজলকে। সব প্রস্নের উত্তরই এক্কেবারে ঠাণ্ডা মাথায় দেন কাজল।