বুধবার, ২৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

বিজেপির ধাক্কার মোকাবিলা তিন দল মিলেই করা হবে:শরদ পাওয়ার ও উদ্ধব ঠাকরে

News Sundarban.com :
নভেম্বর ২৩, ২০১৯
news-image

বিজেপির ধাক্কার মোকাবিলা তিন দল মিলেই করা হবে।  এবং সরকার গঠন করবে জোটই। যৌথ সাংবাদিক সম্মেলনে জানালেন শরদ পাওয়ার ও উদ্ধব ঠাকরে।

শনিবার সাতসকালে বিজেপির ধাক্কায় বেসামাল এনসিপি-শিবসেনা-কংগ্রেস জোট। এনসিপি নেতা  অজিত পাওয়ার যে ভাবে পরিবারে ও দলের মুখে কালি দিলেন তাতে সাংবাদিকদের সামনে আসতে বাধ্য হলেন এনসিপি প্রধান শরদ পাওয়ার। সঙ্গে উদ্ধব ঠাকরেও।

যৌথ সাংবাদিক সম্মেলনে শরদ পাওয়ার বলেন, অজিত পাওয়ার যে এরকমটা করবেন তা দলের কেউই ঘূণাক্ষর্ টের পাননি। সকাল সাড়ে ছটা নাগাদ একটি ফোন আসে। সেখান থেকেই বুঝতে পারি  দলে বিদ্রোহ হয়েছে। অজিত পাওয়ার  দলের কিছু বিধায়ককে নিয়ে রাজভবনে গিয়েছেন।  অজিত পাওয়ারের সঙ্গে গিয়েছে ৮-১০ বিধায়ক। তবে এই ধাক্কা সামলে উঠব আমরা। আমরা তিন দল এক থাকব।

শরদ পাওয়ার আরও বলেন, ‘দলের বিধায়কদের কুব শীঘ্রই বৈঠকে ডাকব। তবে সেই বৈঠকে সবাই আসবেন কিনা বলতে পারব না।’  অর্থাত্ পাওয়ার স্বীকার করেই নিলেন তাঁর দলের কিছু বিধায়ক দল ছেড়েছেন। তবে এর বিরুদ্ধে আমরা একসঙ্গে লড়াই করব। শেষ পর্যন্ত আমাদেরই জয় হবে। উদ্ধব  ঠাকরের নেতৃত্বেই সরকার গড়তে চাই।

অজিত পাওয়ারের বিদ্রোহে সবচেয়ে বেশি ধাক্কা খেয়েছে শিবসেনার  স্বপ্ন। শেষপর্যন্ত উদ্ধবকে মুখ্যমন্ত্রী করেই  এগোতে চেয়েছিল জোট।  কিন্তু সেটাও শেষর্যন্ত ভেস্তে যায়। সাংবাদিক সম্মলনে তিনি বলেন, এরকম ঘটনা দেশে আরও ঘটেছে। শুধু মহারাষ্ট্রেই নয়, হরিয়ানাতেও এ জিনিস হয়েছে। বিজেপির ভাবা উচিত তারা শিবাজী মহারাজের আদর্শের সহ্গে রয়েছে কিনা।  এটা রাজনীতিতে বিজেপির একটি সার্জিক্যাল স্ট্রাইক। এর মোকাবিলা আমরা তিন দল মিলেই করব।

উল্লেক্য, শনিবার সাত সকালে রাজভবনে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন দেবেন্দ্র ফডণবীস। রাজ্যপাল ভগত্ সিং কোশিয়ারি শপথবাক্য পাঠ করান। ডেপুটি মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন এনসিপির অজিত পাওয়ার।

শুক্রবার রাত পর্যন্ত এমন পট পরিবতর্নের কোনও লক্ষণ ছিল না। গতকাল কংগ্রেস, শিবসেনা এবং এনসিপির বৈঠক কার্যত চূড়ান্ত হয়ে যায়, সেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরেই হচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী। এব্যাপারে সব দল সম্মতি দিয়েছে। ছেলে আদিত্যকে নিয়ে বেরিয়ে এসে যদিও এব্যাপারে ভেঙে বলতে চাননি উদ্ধব। শিবসেনা সুপ্রিমো জানান, আলোচনা ইতিবাচক ও ফলপ্রসূ হয়েছে।

গতকাল রাতেও শরদ পাওয়ার জানিয়েছিলেন, তিন দল সহমতে পৌঁছেছে। উদ্ধব ঠাকরেই হবেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু বারো ঘণ্টা না কাটতেই রাজনীতিতে এমন পট পরিবর্তন নজিরবিহীন। সকালেই দেখা গেল এনসিপি বিধায়ক তথা শরদ পাওয়ারের ভাইপো অজিত পাওয়ার ডেপুটি মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ গ্রহণ নিতে। এনসিপির হাত ধরেই বিজেপি রাতারাতি সরকার গড়ার প্রস্তাব রাজ্যপালের কাছে রাখে।