শুক্রবার, ২০শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

বাংলদেশ ক্রিকেটে এখন টালমাটাল অবস্থা

News Sundarban.com :
অক্টোবর ২৩, ২০১৯
news-image

১১ দফা দাবি। যা নিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের বিরুদ্ধে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করেছেন ক্রিকেটাররা। বাংলদেশ ক্রিকেটে এখন টালমাটাল অবস্থা। একদিকে এতগুলো দাবিদাওয়া পূরণের জন্য চাপ বাড়াচ্ছেন ক্রিকেটাররা। আরেকদিকে বিসিবির কর্তারা একের পর এক বেফাঁস মন্তব্য করে চলেছেন। পরিস্থিতি এখন এমন যে সাকিব আল হাসানদের ভারত সফরও অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। তবে বাংলাদেশ যদি শেষমেশ ভারত সফর না আসে তা হলে আখেরে ভারতীয় দলেরই লাভ। সেক্ষেত্রে ম্যাচ না খেলেই ১২০ পয়েন্ট পাবে ভারতীয় দল। এমনিতেই আইসিসি বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে পয়েন্টের বিচারে এখন শীর্ষে বসে রয়েছে কোহলির দল। বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ১২০ পয়েন্ট পেয়ে গেলে বিরাট কোহলির দল বাকিদের জন্য ধরা-ছোঁয়ার বাইরে চলে যাবে।

৩ নভেম্বর দিল্লিতে ভারত-বাংলাদেশ সিরিজের প্রথম টি-২০ ম্যাচ। তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজের পরই হবে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ। সামনের মাসে ভারত সফর। গুরুত্বপূর্ণ সিরিজ। তার আগে তাই বিসিবি ক্রিকেটারদের জন্য একটি ক্যান্প-এর আয়োজন করেছিল। কিন্তু বিদ্রোহের বাতাবরণে কোনও বাংলাদেশি ক্রিকেটার সেই ক্যাম্পে এলেন না। ২৪ অক্টোবর থেকে ক্যাম্প শুরু হওয়ার কথা। বুধবার বিকেলের মধ্যে ছিল ক্যাম্পে রিপোর্টিং টাইম। কিন্তু বিকেল পর্যন্ত মাঠ ফাঁকা পড়ে রইল। কোনও বাংলাদেশি ক্রিকেটার ক্যাম্পে যোগ দিতে এলেন না। এদিকে, বুধবরাই ক্রিকেটার ও বিসিবির মধ্যে আলোচনা হবে। সেই সভায় ইতিবাচক ফলের আশা করছে বাংলাদেশের ক্রিকেট মহল। কলকাতায় ভারত-বাংলাদেশ ম্যাচ দেখতে আসার সম্ভাবনা ছিল শেখ হাসিনার। কিন্তু আপাতত সেসব সম্ভাবনা বিশ বাঁও জলে।

 

গত সোমবার ১১ দফা দাবির কথা জানিয়ে একটি সাংবাদিক সম্মেলন করেন। দলের বেশিরভাগ সিনিয়র ক্রিকেটার সেই সম্মেলনে ছিলেন। বিসিবির বিরুদ্ধে ক্ষোভও উগরে দেন কোনও কোনও ক্রিকেটার। এরই মধ্যে বিসিবির প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপন গোটা ঘটনায় ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তোলেন। তিনি বলেন, জিম্বাবোয়ের মতো বাংলাদেশকেও আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে নির্বাসনে পাঠানোর চেষ্টা করছেন কেউ বা কারা। তবে তিনি কারও নাম উল্লেখ করে কিছু বলেননি। তবে তিনি জানিয়েছেন, কারা এই ধরণের ষড়যন্ত্রের সঙ্গে যুক্তি তিনি সেটা জানেন। তাঁর এমন উক্তি যেন পরিস্থিতি আরও জটিল করে তুলেছে।