বুধবার, ২৪শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কাশ্মীরের তংধর সেক্টরে পাকিস্তানের হামলার পাল্টা জবাবে ধ্বংস হয়েছে ৩টি পাক জঙ্গি লঞ্চপ্যাড

News Sundarban.com :
অক্টোবর ২০, ২০১৯
news-image

কাশ্মীরের তংধর সেক্টরে পাকিস্তানের হামলার পাল্টা জবাবে ধ্বংস হয়েছে ৩টি পাক জঙ্গি লঞ্চপ্যাড। পাশাপাশি প্রাণ হারিয়েছে ৬-১০ পাক সেনা। জানিয়ে দিলেন সেনাপ্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াত।

রবিবার ভোর রাত থেকে তংধর সেক্টরে ভারতীয় সেনা আউটপোস্টগুলিকে লক্ষ্য করে গুলি চালাতে শুরু করে পাক সেনা।  গুলি এসে পড়ে অসমারিক এলাকাতেও। সেই গুলিতে শহিদ হন ২ জওয়ান। একইসঙ্গে প্রাণ হারান এক সাধারণ নাগরিকও। এরপরই পাল্টা গোলাগুলি চালাতে শুরু করে সেনা। তাতে পাক অধিকৃত কাশ্মীরের নীলম ভ্যালিতে ধ্বংস হয় বেশ কয়েকটি জঙ্গি লঞ্চপ্যাড। নিহত হয় বেশ কয়েকজন জঙ্গি। পাক সেনার পক্ষ থেকে স্বীকার করা হয়েছে, ভারতের গোলাগুলিতে ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

জেনারেল বিপান রাওয়াত রবিবার বিকেলে সংবাদমাধ্যমে জানান, সেনার পাল্টা জবাবে কমপক্ষে ৬-১০ পাক সেনা নিহত হয়েছে। ধ্বংস হয়েছে একাধিক জঙ্গি শিবির। নষ্ট হয়েছে ৩টি জঙ্গি লঞ্চপ্যাড।

রাওয়াত আরও বলেন, কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা বিলোপ করার পর অনুপ্রবেশের চেষ্টা বেড়ে গিয়েছে। তবে ধীরে ধীরে সেখানকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে আসছে। তবে কাশ্মীরের শান্তি নষ্ট করার জন্য পাকিস্তান ও পাকিস্তানের বাইরে কোনও কোনও মহল সক্রিয়।

সকালে পাক অধিকৃত কাশ্মীরে ভারতের গোলাগুলির পরই গোটা বিষয়টি প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিংকে জানান রাওয়াত। গোটা পরিস্থিতির ওপরে নজর রাখছেন রাজনাথ সিংও।

সূত্রের খবর ভারতীয় সেনার গোলাগুলিতে পাক অধিকৃত কাশ্মীরের জুরা, আথমুকাম, খুন্দালসির ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। প্রসঙ্গত পাক অধিকৃত কাশ্মীরের আথমুকামেই রয়েছে পাক সেনার সদর দফতর। সেনার ১৫৫ এমএম বোফর্স কামান থেকে ওইসব এলাকায় গোলাবর্ষণ করে সেনা। তাতেই পাক সেনার বেশকিছু বাঙ্কার ধ্বংস হয়ে যায়।