মঙ্গলবার, ৯ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে টেকোর পোস্টার,তবে ছবি ‘বালা’ কিংবা ‘উড়জা চমন’-এর অনুকরণে নয়

News Sundarban.com :
অক্টোবর ১৯, ২০১৯
news-image

 নাম অলোকেশ, যিনি কিনা একজন সাধারণ সরকারি কর্মচারী। তবে অলোকেশ বাবু নিজের মাথার চুল নিয়ে ভীষণই যত্নশীল। অন্যদিকে মীনা, তিনিও নিজের চুল নিয়ে বেশ সচেতন। এই মীনার সঙ্গেই বিয়ের ঠিক করেন অলোকেশের বাড়ির লোকজন। পাত্র-পাত্রী সম্মতিতেই এগোয় বিয়ের কথাবার্তা। একে অপরের সঙ্গে বিয়ের ঠিক হতেই একে অন্যের সঙ্গে সম্পর্কও বেশকিছুটা এগোয়। ভাবছেন তো কে এই অলোকেশ, আর কে-ই বা মীনা? তবে কী নতুন কোনও প্রেমের গল্প?

না, এ ঠিক মানব-মানবীর প্রেম নয়। চুলের সঙ্গে মনুষ্য সমাজের প্রেম। অবাক হবেন না, শুনুন তাহলে অলোকেশ বাবুর কাণ্ডের কথা…

একদিন একটি চুলের তেলের বিজ্ঞাপন দেখে সেটি ব্যবহার করা শুরু করেন অলোকেশ। আর এতেই বিপত্তি। অলোকেশ বাবুর মাথার চুল ঝরতে শুরু করে। মনে মনে বেশ ভেঙে পড়েন অলোকেশ। তাঁর মাথার এই হাল দেখে বিয়ে করতে অস্বীকার করেন মীনা। সকলেই প্রায় অলোকেশকে নিয়ে হাসাহাসি করতে থাকেন। কীভাবে এই অদ্ভুত পরিস্থিতি থেকে মুক্তি পাবেন অলোকেশ? এনিয়েই এগোবে অভিমন্যু মুখোপাধ্যায়ের নতুন ছবি ‘টেকো’ গল্প।

সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে টেকোর পোস্টার। যেখানে অলোকেশের ভূমিকায় দেখা যাচ্ছে ঋত্বিক চক্রবর্তীকে। আর মীনা হলেন শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। গল্পের মতোই বেশ মজার ‘টেকো’ পোস্টার। একটি চেয়ারে বিষন্ন বদনে বসে থাকতে দেখা যাচ্ছে ঋত্বিককে। আর তাঁর সামনে রাখা দুটি তেলের বোতল। চারিদিক থেকে আসা বেশ কয়েকটি হাত এসে ঋত্বিকের সামনে ধরেছে শ্যাম্পু, কাঁচি, নকল চুল ও স্প্রে।

সুরিন্দর ফিল্মসের প্রযোজনায় তৈরি হয়েছে অভিমন্যু মুখোপাধ্যায়ের এই ছবি। যেটি মুক্তি পাবে আগামী ২২ নভেম্বর। তবে কেউ যদি এই ছবিকে ‘বালা’ কিংবা ‘উড়জা চমন’-এর অনুকরণে তৈরি কোনও ছবি ভেবে থাকেন, তাহলে ভুল করবেন। এবিষয়ে ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় মুখ খুলেছেন অভিনেত্রী মানালী দে। তিনি স্পষ্ট জানিয়েছেন, ‘টেকো’ চিত্রনাট্য বহু আগেই লেখা হয়ে গিয়েছিল। ছিবিটিও তৈরি হয়ে গিয়েছিল প্রায় ২ বছর আগে। তবে কিছু কারণে ‘টেকো’ মুক্তি পায় নি। ঘটনাচক্রে ‘বালা’, ‘উড়জা চমন’-এর ঠিক পরপরই মুক্তি পেতে চলেছে ছবিটি।