বুধবার, ২৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

বর্ধমানে বিজেপির গুন্ডাবাহিনীর কাছে আক্রান্ত দেবাঞ্জন ও তাঁর বান্ধবী -যাদবপুরকাণ্ড

News Sundarban.com :
অক্টোবর ৩, ২০১৯
news-image

এবার বর্ধমানে বিজেপির গুন্ডাবাহিনীর কাছে আক্রান্ত হলেন দেবাঞ্জন ও তাঁর বান্ধবী প্রজ্ঞা। এমনই গুরুতর অভিযোগ উঠেছে। তাঁদের অভিযোগ, বুধবার সন্ধ্যের কিছু পরে বর্ধমানের আলিশা বাসস্ট্যান্ডে বিজেপি সমর্থকদের হাতে আক্রমণের শিকার হন -বিশ্ববিদ্যালয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় নিগ্রহ কাণ্ডে অভিযুক্ত দেবাঞ্জন বল্লভ চট্টোপাধ্যায় ও তাঁর বান্ধবী।

যদিও রাতে হামলার পরেই বর্ধমান থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন দেবাঞ্জন। দেবাঞ্জনের অভিযোগ, কলকাতা যাবার জন্য বান্ধবীকে নিয়ে বাসে ওঠার সময় অতর্কিতে হামলা চালায় কয়েকজন বিজেপি সমর্থক। তাঁকে কিল-চড়-ঘুষি মারারও অভিযোগ করেন দেবাঞ্জন। একজন বিজেপি নেতা এসে হুমকি দিয়ে বলেন, বাবুল সুপ্রিয়কে মারার জন্য নাকি তাকে ছেড়ে দেওয়া হবে না।

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়কে হেনস্থার পর ঘটনার ছবি ছড়িয়ে পড়ে স্যোশাল মিডিয়ায়। সেখানেই উঠে আসে অভিযুক্ত দেবাঞ্জন বল্লভ চট্টোপাধ্যায়ের ছবিও। এরপর দেবাঞ্জনের মা রূপালি চট্টোপাধ্যায় স্যোশাল মিডিয়াতে ভিডিয়ো বার্তায় ছেলেকে ক্ষমা করে দেওয়ার জন্য বাবুলকে অনুরোধ করেন। বাবুলও দেবাঞ্জনের মাকে আশ্বস্ত করে জানান, তাঁর ছেলের কোনও ক্ষতি তিনি চান না। এমনকী দেবাঞ্জনও বাবুলের কাছে ক্ষমা চেয়ে ফেসবুকে পোস্ট করেন। যদিও তাঁর পোস্ট ভুয়ো বলে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন দেবাঞ্জন।

এদিকে এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে আজ সকাল ১১টায় কলেজ স্ট্রিট চত্ত্বরে একটি সংবাদিক সম্মেলনের ডাক দেওয়া হয়েছে। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে সকল গণতান্ত্রিক মানুষদের উপস্থিত থাকতে আহ্বান জানানো হয়েছে। তাঁদের অভিযোগ, বিজেপি- বিভিন্ন রাজ্যে একের পর এক মব লিনচিং এর ঘটনা ঘটাচ্ছে, যারা কয়েকদিন আগে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়েও ভাঙচুর চালায়।