শনিবার, ২০শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

নিরাপত্তা সংক্রান্ত ছাড়পত্র ছাড়াই ব্রিজের ‘উদ্বোধন’ করেছে রাজ্য সরকার

News Sundarban.com :
সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৯
news-image

সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে নিরাপত্তা সংক্রান্ত ছাড়পত্র ছাড়াই ব্রিজের ‘উদ্বোধন’ করেছে রাজ্য সরকার। শনিবার ২৭ তারিখ সব নিয়মমাফিক ব্রিজটির উদ্বোধন করবেন রেল প্রতিমন্ত্রী সুরেশ অঙ্গদি। আজ একথা জানিয়েছেন বর্ধমান-দুর্গাপুরের সাংসদ সুরিন্দর সিং আলুওয়ালিয়া।

তিনি বলেন, “এই ব্রিজ তৈরি করার দাবি জানিয়েছিলেন সিপিআইএম-এর সাংসদ সহিদুল হক। ওঁর কথায় ব্রিজের কাজ আরম্ভ হয়েছিল। মমতা বলছেন, ব্রিজের নকশা উনি অনুমোদন করেছেন। উনি ভুলে গিয়েছেন, উনি কবে রেলমন্ত্রী ছিলেন! উনি যে ছবি আঁকেন তা দেখে তো বোঝা যায় না উনি ব্রিজও আঁকেন! এটা দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা।” উপযুক্ত ছাড়পত্র ছাড়াই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তড়িঘড়ি একতরফা ব্রিজ উদ্বোধন করেছেন বলে তোপ দাগেন সাংসদ। বলেন, “উনি কি চান, ব্রিজ পড়ে বর্ধমানের মানুষ মরুক?”

আলুওয়ালিয়া অভিযোগ করেন, “কেন্দ্রীয় সরকারের প্রকল্প সবসময় তাড়াহুড়ো করে উদ্বোধন করে দিচ্ছেন। পানাগড়ে করেছেন। জলপাইগুড়ি সার্কিট বেঞ্চ ৩ মাস পর আবার উদ্বোধন করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর নামাঙ্কিত ফলক সরিয়ে নিজের নামে ফলক বসিয়েছেন।” তিনি জানিয়েছেন, জুলাই মাসেই রেলমন্ত্রী পীযূষ গয়ালকে ব্রিজ উদ্বোধন করার কথা বলেছিলেন তিনি। কিন্তু নির্মাণকারী সংস্থা জানায়,এখনও কাজ বাকি আছে। ওরা ৩০ তারিখ পর্যন্ত সময় চায়। এখন কাল আবার তিনি পীযূষ গয়ালের সঙ্গে কথা বলেন বলে জানিয়েছেন আলুওয়ালিয়া। আর গোটা বিষয়টি শোনার পর উনি সব ছাড়পত্র নিয়ে তাড়াতাড়ি ব্রিজটি উদ্বোধন করতে বলেন। ২৭ তারিখ, শনিবার সেইমতো ব্রিজটির উদ্বোধন করা হবে।

আলুওয়ালিয়া তোপ দেগেছেন, “নিয়ম অনুযায়ী যদি কোনও প্রকল্পে কেন্দ্র-রাজ্য উভয়েরই টাকা থাকে, তবে সব জায়গা থেকেই একজন প্রতিনিধিকে ডাকতে হবে। উনি যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোর দোহাই দেন। কিন্তু এগুলো মানেন না। উনি দার্জিলিংয়ে কোনও প্রকল্পে আমাকে ডাকেননি। অথচ কেন্দ্রীয় প্রকল্পে আমি ডেকেছি। কালও মমতা কাউকে না জানিয়ে একজন পঞ্চায়েত মন্ত্রীকে পাঠিয়ে দিলেন ব্রিজ উদ্বোধন করতে। সুব্রত মুখোপাধ্যায় ছাত্রনেতা ছিলেন। আমার কাছেও সম্মানীয়। কিন্তু উনি তো এখন কার্যত গোলাম।”

প্রসঙ্গত, রেলের তরফে ব্যারিকেড, পোস্টার দেওয়া হয়েছিল। কেন্দ্রের তরফেও আপত্তি ছিল।  কিন্তু চরম স্নায়ুযুদ্ধের মধ্যেই মঙ্গলবার বর্ধমানের রেল স্টেশনের উপরে নতুন রেল ব্রিজের উদ্বোধন করে দেয় রাজ্য সরকার। ব্রিজ উদ্বোধন করে পঞ্চায়েতমন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় বলেন, “আর কোনও উদ্বোধন হবে না, এটাই আসল উদ্বোধন।” যদিও কাল রাজ্য সরকার উদ্বোধন করলেও, আজ সেই ব্রিজের উপর দিয়ে কোনও যানবাহন চলছে না। বরং কাজ শেষ হয়নি বলে কাজ চলছে।