শুক্রবার, ২০শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

শ্রীলংকাকে ইনিংস ও ৪০ রানের বড় হারের লজ্জা দিয়েছে অস্ট্রেলিয়া

News Sundarban.com :
জানুয়ারি ২৭, ২০১৯
news-image

টেস্টে ৩২৩ রান আহামরি কিছু নয়। অজি পেসাররা গতির ঝড় তুলবেন তা আগেই জানা ছিল। দিবারাত্রির টেস্ট হওয়ায় কিছু ভয়ও ছিল শ্রীলংকার। তাই বলে তারা ইনিংস পরাজয় হবে এমন হয়তো ভাবেনি কেউ। বিশেষ করে ভারতের বিপক্ষে ঘরের মাঠে টেস্ট সিরিজ হারা অপেক্ষাকৃত ভঙ্গুর অস্ট্রেলিয়ার কাছে। কিন্তু শ্রীলংকাকে ইনিংস ও ৪০ রানের বড় হারের লজ্জা দিয়েছে অস্ট্রেলিয়া।

লংকানদের ধসিয়ে দেওয়ার এই কাজটি করেছেন অজি পেসার প্যাট কামিন্স। তাকে অলরাউন্ডার বললেও হয়তো আপত্তি থাকবো না অনেকের। ভারতের বিপক্ষে বল-ব্যাট হাতে সেটাই দেখিয়েছেন তিনি। টেস্টে ভারতের কাছে দল হারলেও দুর্দান্ত ফর্মে ছিলেন কামিন্স। এজন্য ওয়ানডে সিরিজে বিশ্রামে রাখা হয় তাকে। সেই বিশ্রাম থেকে ফিরে ফুরফুরে কামিন্স দুই ইনিংসে শ্রীলংকার ১০ উইকেট তুলে নিলেন।

অজিদের হয়ে এ ম্যাচে অভিষেক হয় কুর্তিস প্যাটারসন ও ঝাই রিচার্ডসনের। কুর্তিস ধরেছেন দারুণ এক ক্যাচ। এছাড়া অভিষেক টেস্টে চার ক্যাচ নিয়ে রেকর্ড গড়েছেন তিনি। আর রিচার্ডসনও করেছেন ভালো। প্যাটারসন ব্যাট হাতে করেন ৩০ রান। তার আগে মিডল অর্ডারে ট্রাভিস হেড করেন ৮৪ রান। মার্নাস লাবুশেন করেন ৮১ রান। ওই রানে টেস্ট সুলভ তিনশ’ ছাড়ানো সংগ্রহ পায় অস্ট্রেলিয়া।

প্রথম ইনিংসে যেহেতু ১৪৪ রানে থামে লংকানদের ইনিংস। তাই অজিদের ইনিংস ভালো না বলে উপায় নেই। মূলত দুই দলের প্রথম ইনিংসের পরই অজিরা জয়ের সুবাস পেতে শুরু করে। দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ২৩ রান খরচা করে লংকানদের ৬ উইকেট তুলে নিয়ে তাদের ইনিংস পরাজয় অপরিহার্য করে তোলে তারা। তাতে দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ১৩৯ রানেই গুটিয়ে যায় দীনেশ চান্ডিমালের দল।

এর আগে প্রথম ইনিংসে ৪ উইকেট নেন কামিন্স। দুই ইনিংস মিলিয়ে ৬২ রানে ১০ উইকেট। রেকর্ডে নাম উঠেছে তার। দিবা-রাত্রির টেস্টে এক ম্যাচে এটাই এখন সেরা বোলিং ফিগার। চাঁদ-তারা এবং সূর্যের আলোয় যেহেতু টেস্ট দেখার সুযোগ খুব কম তাই এই রেকর্ড বেশ কিছুদিন অন্তত রেকর্ড বইয়ে রাজ করবে। এর আগে পাকিস্তানের বিপক্ষে উইন্ডিজের বিশু ১৭৪ রানে ১০ উইকেট নিয়ে রেকর্ড গড়েন।