মঙ্গলবার, ৯ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

১০ হাজার টাকা, খুন, গ্রেফতার ৩

News Sundarban.com :
ডিসেম্বর ১৭, ২০১৮
news-image

দশ হাজার টাকার জন্য স্ত্রীকে খুনের অভিযোগ উঠল স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকেদের বিরুদ্ধে। মৃতার নাম টুম্পা মণ্ডল। বয়স ২২ বছর। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার নোদাখালিতে। অভিযুক্ত স্বামী, শ্বশুর ও শাশুড়িকে গ্রেফতার করেছে পুলিস।

নোদাখালি থানার বাওয়ালি মানিকের বাসিন্দা শুভ সরকারের সঙ্গে ২ বছর আগে বিয়ে হয় বিষ্ণুপুর থানার চিলাবেড়িয়ার বাসিন্দা টুম্পা মণ্ডলের। পেশায় নার্সারির শ্রমিক শুভ সরকারের সঙ্গে বিয়ের আগে থেকেই ঘনিষ্ঠতা গড়ে উঠেছিল টুম্পার। বিয়ের পর প্রথম প্রথম সবকিছু বেশ ভালোই চলছিল। আনন্দেই কাটছিল দিন। কিন্তু মাস ঘুরতে না ঘুরতেই সুখী দাম্পত্যের স্বপ্ন একটু একটু করে ভাঙতে শুরু করে।

অভিযোগ, বাপের বাড়ি থেকে টাকা নিয়ে আসার জন্য টুম্পার উপর অত্যাচার শুরু করে স্বামী শুভ সরকার ও শ্বশুর-শাশুড়ি। মৃতার বাপের বাড়ির তরফে দাবি, জামাই শুভ মিত্রের বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক ছিল। সেকথা জেনে ফেলেছিল টুম্পা। স্বামীর পরকীয়ার প্রতিবাদ করতেই টুম্পার উপর শুরু হয় অত্যাচার।

শ্বশুরবাড়িতে টুম্পাকে মারধর করা হত বলে অভিযোগ। সম্প্রতি, বাপের বাড়ি থেকে ১০ হাজার টাকা নিয়ে আসার জন্য টুম্পাকে চাপ দিতে থাকে শুভ। কিন্তু বেঁকে বসে টুম্পা। আর তারপরই টুম্পাকে খুন করা হয় বলে অভিযোগ মৃতার বাপের বাড়ির। পথের কাঁটা সরাতেই গলায় দড়ির ফাঁস দিয়ে জামাই শুভ সরকার তাদের মেয়ে টুম্পাকে খুন করে বলে অভিযোগ তাদের।

তাঁরা জানিয়েছেন, পাড়া প্রতিবেশী মারফত খবর পেয়ে টুম্পার শ্বশুরবাড়িতে ছুটে যান। গিয়ে তাঁরা দেখেন, শ্বশুরবাড়ির বারান্দায় শোয়ানো অবস্থায় রয়েছে টুম্পা। গা ঠান্ডা। সঙ্গে সঙ্গে স্থানীয় গ্রামীণ হাসপাতালে টুম্পাকে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিত্সকরা টুম্পাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

মৃতার বাপের বাড়ির অভিযোগের ভিত্তিতে স্বামী শুভ সরকার ও শ্বশুর, শাশুড়িকে গ্রেফতার করেছে পুলিস। মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে নোদাখালি থানার পুলিস।