বৃহস্পতিবার, ৩০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

নৈহাটির কাঠামো পুজোর মধ্যে দিয়েই ‘বড়মা’র পুজোর প্রস্তুতি শুরু

News Sundarban.com :
অক্টোবর ২৫, ২০১৮
news-image

কালীপূজো নাম বলতেই চোখের সামনে ভেসে ওঠে নৈহাটি নামটি৷ তবে নৈহাটির কালি পুজো বললেই প্রথমেই যে পুজোর কথা উঠে আসে তা হল নৈহাটি ‘বড়মা’র পুজো৷ লক্ষ্মী পুজোর দিন কাঠামো পুজোর মধ্যে দিয়েই ‘বড়মা’র পুজোর প্রস্তুতি শুরু হয়ে যায়৷

মহা ধুমধাম করেই বুধবার কাঠামো পুজো হয় নৈহাটিতে৷ একেবারে প্রথা মেনে বড়মার পুজো শুরু হওয়ার পরই অন্যান্য কালি পুজো শুরু হয়৷ কথিত রয়েছে, নৈহাটির বড়মার কাছে শ্রদ্ধা ভরে কিছু প্রার্থনা করলে সেই মনস্কামনা পূর্ণ করেন দেবী৷

বড়মা উচ্চতায় ২১ ফুট এবং ১৪ হাত লম্বা বলে জানিয়েছেন এলাকাবাসীরা৷ তবে এই বড়মার পুজোতে কোনও চাঁদা তোলা হয় না৷ বড়মার পুজোর প্রণামী বাক্সতে ভক্তরা স্বেচ্ছায় যে টাকা প্রণামী দেয়, তা দিয়েই মহা ধুমধাম করে হয় নৈহাটির বড়মা কালি পুজো৷

এই বছর রীতি মেনে ৬ নভেম্বর মধ্যরাতে বড়মার পুজো হবে৷ বৃহস্পতিবার থেকে বড়মার মূর্তি তৈরি হবে ওই কাঠামোতে৷ বড়মা পুজো কমিটির সম্পাদক তাপস ভট্টাচার্য বলেন, ‘‘বড়মা খুবই জাগ্রত৷ শ্রদ্ধা ভরে কিছু চাইলে ভক্তদের মা খালি হাতে ফেরান না৷

ভক্তদের প্রণামীতেই প্রত্যেক বছর মায়ের পুজো সম্পন্ন হয়৷ পুলিশি নিরাপত্তায় পুজোর আগে অন্তত কোটি টাকার সোনা রূপোর গহনায় মাকে সাজিয়ে তোলা হয়৷ অন্তত ৯০ বছরের বেশি সময় আগে বড়মার এই পুজোর প্রচলন করেছিলেন নৈহাটির বাসিন্দা ভবেশ চক্রবর্তী৷ তিনি নদীয়ার কৃষ্ণনগরে রাস উৎসব দেখতে গিয়ে বড় বড় মূর্তি দর্শন করেছিলেন।