মঙ্গলবার, ১১ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

খালি পেটে চা বা কফি পান শরীরের মারাত্মক খারাপ

News Sundarban.com :
সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৮
news-image

অনেকেই খুব থেকে উঠে সকালে খালি পেটে চা খেতে পছন্দ করেন। কিন্তু বিশেষজ্ঞদের মতে, নিয়মিত খালি পেটে চা বা কফি পান শরীরের উপর মারাত্মক খারাপ প্রভাব ফেলে। শুধু তাই নয়, ধীরে ধীরে মস্তিষ্কের কার্যক্রমেরও অবনতি ঘটায়। খালি পেটে নিয়মিত চা বা কফি পানে যেসব সমস্যা হতে পারে-

১. চায়ে থাকা ক্যাফেইন উপাদান খালি পেটে শরীরে প্রবেশ করা মাত্রই দেহের ভেতরে কিছু পরিবর্তন করে। এর প্রভাবে হঠাৎ করে মাথা ঘুরে যাওয়া বা বমি পাওয়ার মতো সমস্যা দেখা দিতে পারে।

২. দাঁত ব্রাশ না করে চা বা কফি খেলে মুখ গহ্বরের ভেতরে অ্যাসিডের মাত্রা বেড়ে যায়। ফলে দাঁতের উপরের আবরণ বা এনামেল নষ্ট হয়ে যেতে শুরু করে।

৩. রাতের বেলা ঘুমিয়ে পরার পর থেকেই হাজারো ব্যাকটেরিয়া মুখ গহ্বরে জমতে শুরু করে। এমন পরিস্থিতিতে দাঁত না মেজেই যদি চা বা কফি পান করা হয়, তাহলে এই সব ব্যাকটেরিয়া খাদ্যনালী দিয়ে পাকস্থলীতে পৌঁছে। তখন সেখানে অ্যাসিডের মাত্রা বেড়ে যায়।

৪. বেশ কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, চা খাওয়া মাত্র নানা কারণে শরীরে পানির মাত্রা কমতে শুরু করে। সারারাত ঘুমানোর কারণে এমনিতেই শরীরে পানির ঘাটতি থাকে, তার উপর চা পান করলে ডিহাইড্রেশনের সম্ভাবনা আরও বেড়ে যায়।

৫. সকালে খালি পেটে চা বা কফি পানের অভ্যাস থাকলে পেটের ভেতরে, বিশেষত করে পাকস্থলীতে মারাত্মক প্রদাহ সৃষ্টি হয়, যা ইনফেকশনের আশঙ্কা বাড়িয়ে দেয়। সেই সঙ্গে পেপটিক আলসারের মতো রোগ আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনাও বৃদ্ধি পায়।

৬. সকালে ঘুম থেকে উঠে প্রথমেই এক গ্লাস পানি পান করলে শরীরে জমে থাকা টক্সিক উপাদান বেরিয়ে যায়। কিন্তু চা পান করলে টক্সিক উপাদানের আরও বেড়ে যায়।

৭. খালি পেটে চা পান করা মাত্রা মুখগহ্বরে উপস্থিত খারাপ ব্যাকটেরিয়া শরীরের নানা অংশে পৌঁছে যেতে শুরু করে। ফলে খারাপ জীবাণুর উপস্থিতিতে পাকস্থলীতে থাকা ভাল ব্যাকটেরিয়ার সংখ্যা কমে যেতে শুরু করে। ফলে ধীরে ধীরে হজম ক্ষমতা কমে যায়।

৮. একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে, যারা দীর্ঘ দিন ধরে খালি পেটে চা পান করেন তাদের শরীরের পক্ষে ঠিক মতো আয়রন শোষণ করা সম্ভব হয়ে ওঠে না। ফলে তাদের অ্যানিমিয়ার মতো রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বৃদ্ধি পায়। সূত্র : বোল্ড স্কাই