সোমবার, ২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প সম্মেলনে নতুন আলোর দিশা দেখলো বাংলার হ্স্তশিল্প

News Sundarban.com :
আগস্ট ২২, ২০১৮
news-image

নিউটাউনে বিশ্ববাংলার কনভেনশন সেন্টারে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের সম্মেলন শেষে অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র ঘোষণা করলেন বিপুল অঙ্কের বিদেশি বরাতের কথা। মোট ১১৩ কোটি টাকার বিদেশি বরাত এল এবারের এই সম্মেলন থেকে। সেইসঙ্গে দু-লক্ষ কর্মসংস্থানের লক্ষ্যমাত্রা রাখল রাজ্য। অমিত মিত্র বলেন, ২০০০ একর জায়গায় ৩০টি শিল্প পার্ক গড়ে তুলবে রাজ্য সরকারে। বানতলায় একটি লেদার কমপ্লেক্স হবে। সেখানে দেড় লক্ষ মানুষের কর্মসংস্থান হয়েছে ইতিমধ্যেই আর দু-লক্ষ কর্মসংস্থান হবে। ৫ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে গড়ে তোলা হবে ওই কমপ্লেক্স।
২০১৮-র ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প সম্মেলনে চিন, জাপান, নেদারল্যান্ড-সহ বিভিন্ন দেশ থেকে প্রতিনিধি এসেছিলেন। তাঁরা বাংলার হস্তশিল্পের কারুকার্য দেখে অভিভূত। এই শিল্পে তাঁরা মোট ১১৩ কোটি টাকার বরাত দিয়েছেন। ফলে বাংলার হস্তশিল্পে জোয়ার আনবে এই বরাত। গ্রাম বাংলার হস্তশিল্প যে বিশ্বমানের তা প্রমাণ করে দিয়েছে বিদেশিদের উৎসাহ।
এই শিল্প সম্মেলনের শেষ দিনে অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র বলেন, বাংলার প্রান্তিক শিল্পীদের সরকারি সুবিধা প্রদানের কথা। রাজ্যের সরকারে যে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের বিস্তারে সচেষ্ট তা বোঝাতেই পরিসংখ্যান তুলে ধরেন অর্থমন্ত্রী। তিনি বলেন, সাত বছরে মোট ১ লক্ষ ৭৪ হাজার কোটি টাকা ঋণ দেওয়া হয়েছে। শুধু ২০১৭-১৮ অর্থবর্ষেই ঋণ দেওয়া হয়েছে ৪৪ হাজার কোটি। সরকার সামনের দু-বছরের জন্য ৮০ হাজার কোটি টাকার লক্ষ্যমাত্রা রেখেছে।