বুধবার, ১৯শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

পঞ্চায়েত ভোটে নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত রাজ্য সরকারের

News Sundarban.com :
এপ্রিল ২৭, ২০১৮
news-image

একদিনে পঞ্চায়েত ভোট। নির্ঘণ্ট প্রকাশের পরেই নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন তোলে বিরোধীরা। পঞ্চায়েত ভোটে নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত রাজ্য সরকারের। রাজ্য সরকারের অনুরোধে প্রতিবেশী রাজ্য থেকে বাড়তি বাহিনী আসছে পশ্চিমবঙ্গে। এরাজ্যে ৪৬ হাজার সশস্ত্র পুলিশ ছাড়াও নির্বাচনে কারারক্ষী, বনরক্ষী ও আবগারি দফতরের কর্মীদেরও মোতায়েন করা হবে।
ভোটের নির্ঘণ্ট প্রকাশের পরেই নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন তোলে বিরোধীরা। জল গড়ায় কলকাতা হাইকোর্টেও। এই পরিস্থিতিতে নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত রাজ্য সরকারের। পঞ্চায়েত ভোটের নিরাপত্তায় বাড়তি বাহিনী আসছে প্রতিবেশী রাজ্য থেকে। রাজ্যের অনুরোধে ওই বাহিনী আসবে। বুথ প্রতি অন্তত দু’জন সশস্ত্র বাহিনী মোতায়েন করতেই এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে নবান্ন সূত্রে খবর। যা রাজ্যের নির্বাচনী ইতিহাসে সম্ভবত এই প্রথম। পাঁচটি প্রতিবেশী রাজ্যকে চিঠিও পাঠানো হয়েছে। হাইকোর্টে নিরাপত্তা সংক্রান্ত যে মামলা হয়েছে তার প্রেক্ষিতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

শুধু ভিন রাজ্যের পুলিশই নয়। পঞ্চায়েতে ৫৮,৪৬৭ মোট বুথ রয়েছে। সেখানে ৪৬ হাজার রাজ্য সশস্ত্র পুলিশ ছাড়াও ১২ হাজার কলকাতা সশস্ত্র পুলিশ ব্যবহারেরও সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। এছাড়া কারা দফতরের ৩০ শতাংশ সশস্ত্র রক্ষীদেরও মোতায়েন করা হবে। এর জন্য রাজ্যের কারা দফতরের তরফে সব সংশোধনাগারে ইতিমধ্যে চিঠি পাঠানো হয়েছে। এর জন্য জেল কর্মীদের ছুটি বাতিলের সিদ্ধান্তও নেওয়া হয়েছে। এছাড়া বন দফতর ও আবগারি দফতরের কর্মীও ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার।
প্রতিবেশী রাজ্য থেকে বাড়তি নিরাপত্তা বাহিনী আনার সিদ্ধান্তের পর এই মামলার ভবিষ্যৎ নিয়ে প্রশ্ন উঠল। ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি জ্যোতির্ময় ভট্টাচার্য ও বিচারপতি অরিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চ আগামী ৪ মে র মধ্যে কমিশন ও রাজ্যকে রিপোর্ট দিতে বলেছে।