সোমবার, ১৫ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

ড্র নিয়ে ফেরার পর ইউনাইটেড সমর্থকদের কপালে ভাঁজ

News Sundarban.com :
মার্চ ১৪, ২০১৮
news-image

ওল্ড ট্রাফোর্ডে সেভিয়ার বিপক্ষে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের ম্যাচের তখন ৭৪ মিনিট। সেভিয়ার মাঠ থেকে গোল শুন্য ড্র নিয়ে ফেরার পর ইউনাইটেড সমর্থকদের কপালে ভাঁজ উঠতে শুরু করেছে। সেই ভাঁজ ৭৪ থেকে ৭৮ এই চার মিনিটে আরও চওড়া করেছে স্প্যানিশ ক্লাব সেভিয়া। ম্যান ইউ’য়ের জালে দিয়েছে দুই গোল। তার ছয় মিনিট পরে সেভিয়ার জালে লুকাকুর গোল। ঘরের মাঠে ৭৫ হাজার দর্শকের সামনে ঘুরে দাঁড়ানোর আভাস কিন্তু তা ওখানেই শেষ।

সেভিয়া ৬০ বছর পরে ইউরোপের শীর্ষ কোন টুর্নামেন্টের কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছে। ওল্ড ট্রফোর্ডে ৬০ বছর আগে ইউরোপিয়ান লিগে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে হারিয়ে যে রূপকথা লিখেছিল তার ভেতরের কাহিনীটা যা একটু পরিবর্তন করল শিরোনাম রাখল একই। আর ঘরের মাঠে হিসেব মেলানোর ম্যাচে মরিনহোর দলের স্বপ্ন ঝুরঝুর করে ভেঙে পড়ল। ইংলিশ লিগের শিরোপা জেতার মতো চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতার স্বপ্নও থেমে গেল শেষ ষোলোয়।

ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ম্যাচের ৩৮তম মিনিটে ফেলাইনি গোলে দারুণ এক শট নিয়ে ভালো কিছুর আভাস দিয়েছিল কিন্তু শটটি ঠেকিয়ে দেন গোলরক্ষক রিকো। দ্বিতীয়ার্ধে দু’দলই আক্রমণ পাল্টা আক্রমণ শুরু করে। দ্বিতীয়ার্ধের তৃতীয় মিনিটেই আক্রমণ শানে সেভিয়া কিন্তু বল গোলে রাখতে পারেনি। চার মিনিট পর আবারও ম্যান ইউ’র দারুণ এক শট ঠেকান রিকো।

তবে সেভিয়ার ভাগ্য লেখা ছিল বেন এয়েদেরের হাতে। বদলি খেলোয়ার হিসেবে নামেন ৭২ মিনিটে। এর দুই মিনিট পরে ম্যান ইউ’য়ের জালে প্রথম বল পাঠান ইয়েদের। সেভিয়ার হয়ে দ্বিতীয় গোলটি করতে সময় নেন মাত্র চার মিনিট। ৭৮ মিনিটে দারুণ হেডে গোল দ্বিগুন করেন তিনি।

এরপর ১০ মিনিটের ব্যবধানে ওল্ড ট্রাফোর্ড দেখলো তৃতীয় গোল। ম্যানচেস্টর ইউনাইটেডের বেলজিয়াম স্টাইকার ৮৪ মিনিটে গোল করে ঘুরে দাঁড়ানোর আভাস দেন। কিন্তু ততক্ষণে সব শেষ। সেভিয়া ২-১ গোলে শুধু এগিয়েই যায়নি দুটি অ্যাওয়ে গোলও আদায় করে নিয়েছে। শেষ বাঁশি বাজতে বাজতেই উঠে গেছে চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে।

চ্যাম্পিয়নস লিগের অন্য ম্যাচে ঘরের মাঠে শাখতার দোনেৎস্ককে ১-০ গোলে হারিয়েছে ইতালির ক্লাব রোমা। ১০ বছর পর উঠেছে চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ আটে। প্রথম লেগ নিজেদের মাঠে ২-১ গোলে জিতেছিল ইউক্রেনের ক্লাব শাখতার। দুই লেগ মিলিয়ে ম্যাচটি ২-২ গোলে সমতায় থাকলেও অ্যাওয়ে গোলের সুবিধায় কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত হলো রোমার।