সোমবার, ২৩শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

অযোগ্য নেতাদের জন্য বিজেপির অগ্রগতি ব্যহত হচ্ছে

News Sundarban.com :
মার্চ ২, ২০১৮
news-image

আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচন। ক্ষমতার চুড়ান্ততম পর্যায়ে শাসক সম্প্রদায় তৃণমূল।জাতীয় দল কংগ্রেস কে যেখানে দূরবীণ দিয়ে দেখতে হয়,অন্যদিকে সিপিএম তো ডুবো জাহাজ।এই মুহুর্তে সামনে মাত্র দুটি দল তৃণমূল কংগ্রেস ও বিজেপি।দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলার ক্যানিং মহকুমা এলাকার পরিস্থিতি অনুকুলে কারণ তৃণমুলের “যুব-মাদার” কমিটির যে অগ্নিগর্ভে জণগনের নাভিশ্বাস উঠেছে সেখানে জণগনের একমাত্র অক্সিজেন বিজেপি।এমন একটি রাজনৈতিক পরিস্থিতি অনুকুলে থাকা স্বত্বেও কিছু কান্ডঞ্জানহীন দলীয় নেতৃত্ব তার সুফল উঠাতে ব্যর্থ।যাদের দল কি জিনিস,দলীয় উত্তরীয়, কিংবা দলীয় পতাকার বা কি মর্ম এই সম্পর্কে বোধঞ্জান নেই তেমন কিছু বিজেপি কর্মী পদাধিকারবলে ক্ষমতাসীন বোধঞ্জানহীন কিছু নেতৃত্ব।যেখানে নিজেদের দল কে হেয় প্রতিপন্ন করে তুলেছে এনিয়ে সোস্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক ঝড় ।
ঘটনায় প্রকাশ গত ২৬ ফেব্রুয়ারী দলীয় কর্মসূচী সেরে ফেরার পথে দুষ্কৃতিদ্বারা জনাকয়েক বিজেপি কর্মী সমর্থক আক্রান্ত হয়।তেজেন মন্ডল নামে এক বিজেপি কর্মীর পায়ে গুরুতর আঘাত হয়।সে সময় দলীয় উত্তরীয় দিয়ে পায়ের ক্ষতস্থান বেঁধে সেই ছবি তুলে সোস্যাল মিডিয়ায় পোষ্ট করেন দক্ষিণ ২৪ পরগণা পূর্বজেলার সাধারণ সম্পাদক প্রতিশ্রুতি দেবনাথ।দক্ষিণ ২৪ পরগণা পূর্বজেলার আর এক সাধারণ সম্পাদক নারায়ণ মল্লিক বলেন“দলীয় পতাকা কিংবা উত্তরীয় যাই হোকনা কেন পাঁয়ে ওটা বাঁধা একেবারেই উচিত নয়। এতে করে দলের সম্মান হানি হবে”।  এবিষয়ে দক্ষিণ ২৪ পরগণা পূর্ব জেলা সভাপতি ত্রিদিব মন্ডল বলেন “ঘটনার সময় হাতের কাছে কিছু না থাকায় অঞ্জাত ভাবে দলীয় উত্তরীয় দিয়ে পায়ের ক্ষতস্থান ব্যান্ডেজ করে।তবে দলীয় উত্তরীয় দিয়ে এমন কাজ করা উচিত হয়নি”।