শুক্রবার, ১৭ই মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

যোগ্যতার ভিত্তিতে অভিবাসন

News Sundarban.com :
ফেব্রুয়ারি ৫, ২০১৮
news-image

যোগ্যতার ভিত্তিতে অভিবাসন ট্রাম্পের নীতির সমর্থনে হোয়াইট হাউসের বাইরে মিছিল কয়েকশো ভারতীয়। তাঁরা প্রত্যেকেই উচ্চশিক্ষিত এবং দক্ষ কর্মী। যদিও গ্রিন কার্ড পাওয়ার জন্য তাঁদের দীর্ঘদিন অপেক্ষা করতে হচ্ছে। তাই ট্রাম্প যোগ্যতার ভিত্তিতে অভিবাসনের নীতি নেওয়ায় খুশি সফটঅ্যয়ার ইঞ্জিনিয়ার সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে কর্মরত ভারতীয়রা। তাঁরা চাইছেন প্রতিটি দেশ থেকে অভিবাসী নেওয়ার উর্ধ্বসীমা তুলে দেওয়া হোক।
ক্যালিফোর্নিয়া, টেক্সাস, শিকাগো, ফ্লোরিডা, নিউ ইয়র্ক, ম্যাসাচুসেটসের মতো শহরগুলি থেকে ভারতীয় কর্মীরা হোয়াইট হাউসের বাইরে এই মিছিলে গিয়ে যোগ দেন। তাঁদের সঙ্গে স্ত্রী-সন্তানরাও ছিলেন। রিপাবলিকান হিন্দু কোয়ালিশনের ন্যাশনাল পলিসি অ্যান্ড পলিটিক্যাল ডিরেক্টর কৃষ্ণ বনসল বলেছেন, ‘আমরা চাই যোগ্যতার ভিত্তিতে অভিবাসনের ব্যবস্থা করা হোক। এর ফলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সমৃদ্ধি এবং দ্রুত আর্থিক উন্নতি হবে। যোগ্যতার ভিত্তিতে অভিবাসনের ব্যবস্থা করার জন্য আমরা প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের পাশে আছি।’ভার্জিনিয়ার রোনাল্ড রেগন মিডল স্কুলের ছাত্রী ১৩ বছর বয়সি অক্ষিতা রমেশও এই মিছিলে যোগ দিয়েছিল। সে বলেছে, ‘যোগ্যতার ভিত্তিতে অভিবাসনের ব্যবস্থা করার সময় এসেছে। যাদের দক্ষতা আছে, কাজ করতে চায়, আমাদের সমাজে অবদান রাখবে এবং দেশের প্রতি ভালবাসা ও সম্মান থাকবে, তাদেরই এদেশে এসে থাকতে দেওয়া উচিত। অন্য দেশগুলি থেকে আসা লোকজন দু’বছরেরও কম সময়ে গ্রিন কার্ড পেয়ে যায়। কিন্তু ভারত থেকে আসা অত্যন্ত দক্ষ ভারতীয়দের গ্রিন কার্ড পাওয়ার জন্য ১২ বছর থেকে ৭০ বছরেরও বেশি সময় অপেক্ষা করতে হয়। এটা ঠিক নয়।’