বৃহস্পতিবার, ১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কুসংস্কার ও নেশার দূর করতে হাতিয়ার নাটক

News Sundarban.com :
জানুয়ারি ১৭, ২০১৮
news-image

এবার নাটককে হাতিয়ার করে আদিবাসী সমাজ থেকে কুসংস্কার ও নেশার দুরীকরণ প্রচেষ্টা প্রশাসনের। বুধবার দক্ষিণ দিনাজপুরের সদর শহরের বালুরঘাট হাইস্কুল মাঠে আয়োজিত প্রতিযোগিতামূলক এই উৎসবে জেলার বিভিন্ন ব্লকের মোট আটটি নাটকের দল অংশ নিয়েছে। তাতে ছেলেদের পাশাপাশি মেয়েরাও বিশেষ করে গৃহবধুরাও সমান তালে অংশ নিয়েছেন। এদিনের নাট্য প্রতিযোগিতায় সাঁওতালি কুড়ুখ সাদ্রী সহ আদিবাসী ভাষায় রচিত যে নাটকগুলি মঞ্চস্থ হয়েছে সেগুলি হলো আনন্দময়ী আদিবাসী লোকনৃত্য সংস্থার “অন্ধ বিশ্বাস”। বীরসামুন্ডা মা জননী নাট্যদলের “ভুইনিকার মাইকে ছোটকা সংসার”(ভুনির মায়ের গরিব সংসার)। নবরূপা আদিবাসী মিলনী ক্লাবের “নি:খোর তাম্বাস”(মাতাল বাবা)। চন্ডিপুর আদিবাসী সাগেন সাকাস-এর “মার্শাল”(আলো)। শ্রী শ্রী চান্দবাবা সম্প্রদায়ের “জেটকে মুর্মুর সংসার”। এভেন আরাং-এর “দে সন্তরপ তাবন পে”( সতর্ক হও)। ভারতীয় আদিবাসী নাট্যসংস্থার “সন্তোর”(সতর্ক) এবং গোপী শহর গাওন গাঁওতা’র “যুগ মার্শায”(যুগের আলো)। আদিবাসী ভাষায় রচিত একাঙ্ক নাটক প্রতিযোগিতার উদ্বোধক জেলাশাসক শরদ কুমার দ্বিবেদী জানিয়েছেন যে, সমাজ থেকে কুসংস্কার দূর করার সঙ্গে নাটকের মাধ্যমে সচেতনতা মূলক বার্তা ছড়িয়ে দেওয়াই এই প্রতিযোগিতার মূল লক্ষ্য। শুধু জেলাস্তরেই নয় আগামী ২৯জানুয়ারী থেকে তপন ব্লকের বালাপুরে রাজ্য স্তরেরও প্রতিযোগিতার আয়োজন তাঁরা করতে চলেছেন।