শনিবার, ১৮ই মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

হাড় কাঁপানো ঠাণ্ডা সাথে চলবে কুয়াশার দাপট

News Sundarban.com :
জানুয়ারি ১৫, ২০১৮
news-image

রাজ্য জুড়ে চলবে কুয়াশার দাপট, থাকবে কড়া ঠাণ্ডাও। কোনও কোনও স্থানে ১০০ মিটারেরও কম হতে পারে দৃশ্যমানতা। এমনটাই জানাচ্ছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। শনিবার থেকেই কুয়াশার দাপট শুরু হয়েছিল পশ্চিমবঙ্গের অধিকাংশ স্থানেই। সেই অবস্থা আরও কয়েক দিন থাকবে বলেই জানাচ্ছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। সঙ্গে ঠাণ্ডার দাপটও চলবে বলে জানাচ্ছেন আবহবিদরা। শীতকালে কুয়াশা না পড়লে সেটা অস্বাভাবিক আচরণ বলা যেতেই পারে। মুখ দিয়ে ‘ধোঁয়া’ বেরোলে তবেই যেন শীতের আসল মজা আসে। কিন্তু অনেক সময় শীতের বারোটা বাজিয়ে দেয় কুয়াশা। তবে সেই যাত্রায় বাঁচোয়া। এই মরসুমের কুয়াশা শীতের ব্যঘাত ঘটাচ্ছে না।
আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানাচ্ছে এই কুয়াশার বহর জারি থাকবে সমগ্র পশ্চিমবঙ্গে। সঙ্গে জারি থাকবে ঠাণ্ডার দাপটও। সোমবার সকালের ব্যাপক কুয়াশায় ঢেকেছিল। কলকাতা সহ সমগ্র জেলার সকালের দিকে দৃশ্যমানতা নেমে এসেছিল ১০০ থেকে ১৫০ মিটারের কাছাকাছি। সঙ্গে ছিল ঠাণ্ডার দাপট কলকাতার তাপমাত্রা ছিল ১২ ডিগ্রি । জেলা গুলির তাপমাত্রা কোনও কোনও স্থানে ১০-এর নিচে নেমে গিয়েছিল। ঠাণ্ডা ও কুয়াশার ডুয়াল ব্যাটিং আগামী কয়েক দিনেও জারি থাকবে বলে জানাচ্ছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। হাওয়া অফিসের কর্তা গনেশ কুমার দাস জানিয়েছেন, “ঠাণ্ডার সঙ্গে কুয়াশার দাপট জারি থাকবে সমগ্র বাংলায়। আগামী দু’দিনে অন্তত কুয়াশা কাটার সম্ভাবনা নেই। আপাতত হয়তো পারদ সামান্য চড়েছে। কিন্তু ফের তাপমাত্রা কমতে পারে মঙ্গলবার থেকেই।”
এই কুয়াশার দাপটের কারণ কি ? আবহবিদ জানিয়েছেন, “উত্তর পশ্চিম বাংলাদেশের উপর ঘূর্ণাবর্ত এখনও রয়েছে। তার জন্যই এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।” ওই কুয়াশা রয়েছে বিহার , উত্তরপ্রদেশে ব্যাপক প্রভাব ফেলছে। সঙ্গে প্রভাব ফেলেছে উত্তরবঙ্গতেও। উত্তরবঙ্গের এই কুয়াশাকে উত্তর-পশ্চিমী হাওয়া টেনে আনছে মুর্শিদাবাদ, নদীয়াতে। সেখান থেকেই কুয়াশা প্রবেশ করছে কলকাতায়। এমনভাবেই কুয়াশা ঘিরে রেখেছে সমগ্র বাংলাকে।
ঠাণ্ডার দাপট জারি থাকার কারণ কি ? কুয়াশার সঙ্গে জম্মু ও কাশ্মীরের ঠাণ্ডা হাওয়া ক্রমাগত ঢুকছে বাংলায়। সেটাই কুয়াশা ও ঠাণ্ডার দাপটকে কমতে দেয়নি। আগামী দু’দিনে এই পরিস্থিতি জারি থাকবে বলে জানাচ্ছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। হাওয়া অফিস জানিয়েছে, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগণা। কলকাতা , হাওড়া, হুগলীসহ সমগ্র গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে কুয়াশার দাপট দেখা যাবে। পাশাপাশি গাঢ় কুয়াশা থাকবে দার্জিলিং জলপাইগুড়ি ও মালদায়। পাশাপাশি ঠাণ্ডার দাপট বজায় থাকবে উত্তরবঙ্গসহ উত্তর ২৪ পরগণা ও নদীয়ায়। ঠাণ্ডা অনুভূত হবে কলকাতাতেই। তাপমাত্রা থাকবে সর্বনিম্ন ১২ ডিগ্রি থেকে সর্বোচ্চ ২৩ ডিগ্রির মধ্যে। এদিন কলকাতার তাপমাত্রা ছিল সর্বোচ্চ ২১.৯ ডিগ্রি যা স্বাভাবিকের থেকে ৪ ডিগ্রি কম। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১২ ডিগ্রি সেলসিয়াস, স্বাভাবিকের চেয়ে যা ২ ডিগ্রি কম।