শনিবার, ১৮ই মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

অাত্মা”প্রকল্পে ক্যানিং ১ং ব্লকে সর্বপ্রথম বস্তায় আদা চাষ

News Sundarban.com :
জানুয়ারি ১০, ২০১৮
news-image

নতুন নতুন চাষের দিশা দেখাচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকারের “আত্মা” প্রকল্প। বিভিন্ন এলাকায় কম খরচে বেশী লাভজনক চাষ হাতে-কলমে শিখিয়ে গ্রামের মহিলা,দরিদ্র কৃষকের মুখে হাসি ফুটিয়েছে এগ্রিকালচারাল টেকনোলজি ম্যানেজমেন্ট এজেন্সী(আত্মা)।
ইতিমধ্যে সুন্দরবনের বিভিন্ন এলাকা মাশরুম চাষ করে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। বর্তমানে সর্বপ্রথম ক্যানিং ১ নং ব্লকে পরীক্ষামূলক ভাবে বস্তায় আদা চাষ করে সফলতা অর্জন করে চাষের ক্ষেত্রে নতুনদিশা দেখাচ্ছে আত্মা। ক্যানিং ১নং ব্লকের আত্মার এ্যাসিষ্ট্যান্ট টেকনোলজি ম্যানেজার(এটিএম) মৌমিতা দিন্দা বলেন “আমরা পরীক্ষামূলক ভাবে বস্তায় আদা চাষ করে সফল হয়েছি। আগামী দিনে এই সুন্দরবন এলাকায় লবনাক্ত মাটি থাকা স্বত্বেও বস্তায় আদা চাষের এক নবদিশা তৈরী হল”।
ক্যানিং ১নং ব্লক সহকৃষি আধিকারিক গোপা সমাদ্দার বলেন “বস্তায় আদা চাষে আমরা পরীক্ষা মূলক ভাবে ক্যানিংয়ের দুই চাষী সীমা প্রধান ও অনিল হালদারের কাছে সফলতা পেয়ে খুবই খুশি। আমরা ৫ কেজি দেশী আদা,১৫০কেজি ভার্মিকম্পোষ্ট(কেঁচো সার),৫০টি করে বস্তা দিয়েছিলাম। এপ্রিল মাসে আদা বসানো হয়। এক একজন চাষী ৫ কেজি দেশীআদা বস্তায় চাষ করে ৭০কেজি ফসল ঘরে তুলেছেন। এই চাষের জন্য জমি যেমন কম লাগে ঠিক তেমনই খরচ কম এবং বাড়ীর মহিলারা এই চাষ করে স্বনির্ভরতা হতে পারবে।”
জীবনতলা মঠেরদিঘী পল্লী সেবাসদনের সচিব খোকন মন্ডল বলেন আত্মা উদ্যোগে ক্যানিং ১ও ২নং ব্লকের বেশ কিছু মহিলা মাশরুম চাষ করে স্বনির্ভর হয়েছেন। আবার বাড়ীতে বস্তায় আদা চাষ স্বনির্ভর মহিলাদের আরও এক ধাপ উচ্চতায় পৌঁছে দিয়ে সহযোগিতা করলো। সুন্দরবনে চাষের বিপ্লবে এ এক নবতম সংযোজন।