মঙ্গলবার, ৯ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

নার্সিংহোমে গাফিল্তিতে ফের রোগীর মৃত্যু

News Sundarban.com :
ডিসেম্বর ৩০, ২০১৭
news-image

কলকাতার নামি নার্সিংহোমে ভুল গ্রুপের রক্ত দেওয়ায় মৃত্যু হল রোগীর। অভিযোগ, ‘O’ পজিটিভ ব্লাড গ্রুপের রোগীকে দেওয়া হয় ‘B’ পজিটিভ রক্ত। আর এরফলেই মৃত্যু হয় কলকাতা দক্ষিণ শহরতলির আক্রা সন্তোষপুরের বাসিন্দা ৬৬ বছরের সুশান্ত কুমার নাগের। শেক্সপিয়র সরণি থানার নার্সিংহোমের বিরুদ্ধে অভিযোগ নিতে চায়নি বলে দাবি নিহতের পরিবারের। মাথা ঘোরা আর খাবারে অনীহার উপসর্গ নিয়ে ২২ মার্চ থিয়েটার রোডের নার্সিংহোমে ভর্তি হন ৬৬ বছরের সুশান্ত কুমার নাগ। পরীক্ষায় ধরা পড়ে তাঁর রক্তে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বিপজ্জনকভাবে কমে গিয়েছে। হিমোগ্লোবিন বাড়াতে দুই ইউনিট রক্ত দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন চিকিত্সকরা। বাড়ির লোকেদের দাবি, তাঁরা নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছিলেন সুশান্ত বাবুর রক্তের গ্রুপ ‘O’ পজিটিভ। কিন্তু তারপরেও প্রোটোকল মেনে নিজেদের ল্যাবে সুশান্তবাবুর রক্তের গ্রুপ পরীক্ষা করে ওই নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষ।
সুশান্ত কুমার নাগের ছেলে সৌত্রিক নাগের অভিযোগ, দ্বিতীয় দিন সকালে নার্সিংহোমে গিয়ে তাঁরা দেখতে পান রোগীকে B পজিটিভ গ্রুপের রক্ত দেওয়া হয়েছে। এই কথা নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষকে জানালে প্রথমে রোগীর ব্লাডগ্রুপ ‘O’ পজিটিভ হওয়ার কথা অস্বীকার করে তারা। একইসঙ্গে রোগীকে ছেড়ে দেওয়ার হুমকিও দেয় কর্তৃপক্ষ।
অবস্থার অব্নতি হলে তাঁকে আইসিইউ-তে ভর্তির পরামর্শ দেন চিকিত্সক। শুরু হয় হিমোডায়ালিসিস। রক্তক্ষরণ সামাল দিতে নতুন করে ছয় ৬ ইউনিট ‘O’ পজিটিভ রক্ত তাঁকে দেওয়া হয় তাঁকে।  ১০ এপ্রিল মৃত্যু হয় সুশান্ত কুমার নাগের।
এদিকে ভুল গ্রুপের রক্ত দেওয়ার মতো মারাত্মক ভুল করলেও নার্সিংহোমের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ পরিবারের। ভুল রিপোর্ট আসার পরদিনই নার্সিংহোমের বিরুদ্ধে শেক্সপিয়র সরণি থানায় প্রথম অভিযোগ জানাতে যান সুশান্তবাবুর ছেলে সৌত্রিক। অভিযোগ, নার্সিংহোমের বিরুদ্ধে FIR নেওয়া দূরের কথা, ছেলের অভিযোগপত্রের ভিত্তিতে জেনারেল ডায়েরিটুকুও গ্রহণ করেনি থানার আধিকারিকরা।
বর্তমানে সুবিচারের আশায় প্রশাসনের দরজায় ঘুরছে নাগ পরিবার। থিয়েটার রোডের নার্সিংহোমের বিরুদ্ধে অভিযোগ জমা পড়েছে স্বাস্থ্যভবনে। অভিযোগ জমা পড়েছে রাজ্য মেডিক্যাল কাউন্সিলেও।_২৪ঘন্টা