সোমবার, ২৭শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সচিনকে নির্বাচকমণ্ডলী তাঁকে দল থেকে বাদ দিয়ে দিত:সন্দীপ

News Sundarban.com :
ডিসেম্বর ২৬, ২০১৭
news-image

ক্রিকেট থেকে সচিনের অবসর একটি যৌথ সিদ্ধান্ত! হ্যাঁ, এমনই বিস্ফোরক দাবি করলেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন প্রধান নির্বাচক সন্দীপ পাতিল। সৌরভ-সচিনের আমলের এই নির্বাচকের দাবি, “সচিন নিজে অবসরের সিদ্ধান্ত না ঘোষণা করলে নির্বাচকমণ্ডলী তাঁকে দল থেকে বাদ দিয়ে দিত।”

সম্প্রতি একটি প্রথম সারির সংবাদমধ্যামের বিস্ফোরক সাক্ষাৎকারে পাতিল জানান, “২০১২ সালের ডিসেম্বর মাসে আমরা (নির্বাচকমণ্ডলী) সচিনকে তাঁর ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে জিজ্ঞাসা করি। সচিন আমাদের জানিয়েছিল, তিনি তখনও অবসরের কথা ভাবেননি। তবে ম্যানেজমেন্ট এবং বোর্ড তাঁকে নিয়ে যে একটা সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেকথা স্পষ্ট ভাবে জানিয়ে দেওয়া হয়। সচিন বুঝতে পারে এবং একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নেয়। সচিন তখন সরে না গেলে, তাঁকে দল থেকে বাদ দেওয়া হত।”

সচিনের অবসর প্রসঙ্গে সন্দীপ পাতিল আরও বলেন, “মাস্টার ব্লাস্টার টেস্ট ক্রিকেটেই মনোনিবেশ করেছিল। আমার এবং সঞ্জয়ের (তৎসময়ের বিসিসিআই সেক্রেটারি) সঙ্গে কথা বলেই একদিনের আন্তর্জাতিক থেকে অবসর নেওয়ার কথা জানায় সচিন।”
উল্লেখ্য, এশিয়া কাপ চলাকালীন ঢাকায় পাকিস্তানের বিরুদ্ধে শেষ আন্তর্জাতিক খেলেই ৫০ ওভারের ক্রিকেটকে আলবিদা বলেন মাস্টার ব্লাস্টার। দিনটি ছিল ২০১২ সালের ২৩ ডিসেম্বর। ৪৬৩টি ওয়ানডে খেলে সচিন তেন্ডুলকরের রান ১৮,৪২৬ (৪৯ শতরান)। এর ঠিক পরের বছরই ১৪ নভেম্বর (২০১৩) আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেকে জীবনের মত গুড বাই জানান সচিন। মুম্বইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে জীবনের ২০০তম টেস্ট খেলে দুই দশকেরও বেশি সময়ের ক্রিকেট কেরিয়ারে ইতি টানেন সচিন তেন্ডুলকার। -২৪ ঘণ্টা