সোমবার, ২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শুরু হল সুন্দরবন কৃষ্টিমেলা ও লোকসংস্কৃতি উৎসব

News Sundarban.com :
ডিসেম্বর ২১, ২০১৭
news-image

সুভাষ চন্দ্র দাশ .  ক্যানিং

গণচেতনা,গণশিক্ষা,গণসংস্কৃতির বিকাশ,শান্তি,সম্প্রীতি ও স্বনির্ভরতার বার্তা দিয়েই শুরু হল সুন্দরবন কৃষ্টি মেলা ও লোকসংস্কৃতি উৎসব।বুধবার সন্ধ্যায় দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলার বাসন্তী ব্লকের কুলতলির নারায়নতলায় ২২ তম বর্ষের মেলার আনুষ্ঠানিক সূচনা করেন সৌরবিঞ্জানী তথা ত্রিপুরা স্টেট সোলার পাওয়ার কমিটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডঃ শান্তিপদ গণ চৌধূরী।এছাড়াও কুলতলি মিলনতীর্থ সোসাইটি আয়োজিত মেলার আনুষ্ঠানিক সূচনায় উপস্থিত ছিলেন প্রাক্তন সাংসদ মনোহর তীরকে,পশ্চিমবঙ্গ বায়োডায়ভার সিটি বোর্ডের চেয়ারম্যান ডঃ অশোক কান্তি স্যানাল,রিজিওন্যাল পাসপোর্ট অফিসার বিভুতিভূষণ কুমার,প্রাক্তন মন্ত্রী সুভাষ নস্কর,মেলা কমিটির সভাপতি তথ কুলতলি মিলনতীর্থ সোসাইটির কর্ণধার লোকমান মোল্ল্যা,সহ বিশিষ্ট ব্যাক্তিবর্গ।
১০দিনের মেলায় থাকছে জনস্বাস্থ্য পরিবার কল্যাণ নারীওশিশুবিকাশ,কৃষি মৎস্যপ্রাণী সম্পদ বাকাশ,বন পরিবেশ পর্যটন বিকাশ,বিঞ্জান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিকাশ,মানবসম্পদ উন্নয়ন,সুন্দরবন দিবস,স্বচ্ছতাই সেবা,শিক্ষাও সংস্কৃতি,সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও জাতীয় সংহতি দিবস পালনের পাশাপাশি থাকছে বিশিষ্টদের আলোচনা।
মেলার কমিটির সভাপতি তথা কুলতলি মিলন তীর্থ সোসাইটির কর্ণধার লোকমান মোল্ল্যা জানান “মেলায় প্রতিদিন থাকছে বিভিন্ন ধরনের সাংস্কৃতি অনুষ্ঠান,সেই সাথে থাকছে গ্রাম বাংলার হারিয়ে যাওয়া ঐতিহ্যবাহী যাত্রাপালা ও ১০ দিন ব্যাপি পাসপোর্ট সেবা ক্যাম্প থাকছে,যা এই প্রত্যন্ত সুন্দরবন এলাকায় সর্বপ্রথম”। মেলায় রয়েছে রাজ্য সরকারের ৬ টি ষ্টল এবং কেন্দ্র সরকারের ৩৪ টি বিভিন্ন ধরনের ষ্টল ছাড়াও অন্যান্য নানান ধরনের প্রচুর ষ্টল। এদিন অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে দাবী তোলা হয় সুন্দরবনের ছাত্রছাত্রীদের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়,রেললাইন এবং সুন্দরবনের প্রত্যন্ত গ্রাম্য মায়েদের জন্য মাতৃসদন হাসপাতাল গড়ে তোলার। মেলা চলবে ২৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত।