সোমবার, ১৭ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ডলফিনের সবচেয়ে পছন্দের উপহার— সামুদ্রিক স্পঞ্জ

News Sundarban.com :
ডিসেম্বর ২০, ২০১৭
news-image

মানুষের মতো প্রেমিকাকে উপহার দেওয়ার রীতি চালু আছে সামুদ্রিক প্রাণি ডলফিনদের মধ্যেও। ‘ইউনিভার্সিটি অব ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়া’ (ইউডব্লিউএ)-র বিজ্ঞানীরা উত্তর-পশ্চিম অস্ট্রেলিয়ার উপকূলীয় অঞ্চলে প্রায় এক দশক ধরে গবেষণা চালিয়ে এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন।সম্প্রতি অষ্ট্রেলিয়ার সাইন্টিফিক রিপোর্ট জার্নালে এ নিয়ে একটি প্রতিবেদনও প্রকাশিত হয়।

ইউনিভার্সিটি অফ ওয়েষ্টার্ণ অষ্ট্রেলিয়ার একজন গবেষক সিমন অ্যালেন বলেন, গবেষণায় দেখা গিয়েছে পুরুষ ডলফিনদের ডেটিংয়ের আচরন অনেকটা মানুষের মতোই।

গবেষকদের দাবি, প্রেমিকাকে খুশি করার পাশাপাশি উপহারও দিতে ভালবাসে পুরুষ ডলফিনরা। এক্ষেত্রে তাদের সবচেয়ে পছন্দের উপহার— সামুদ্রিক স্পঞ্জ।গবেষক সিমন অ্যালেন বলেন, প্রেমিকার মন জয় করতে পুরুষ ডলফিনদের গান গাইতেও দেখা গেছে। তার ভাষায়, স্পঞ্জ উপহার দেওয়ার পর পুরুষ ডলফিনের নাকের ভিতর দিয়ে ভেপুর মতো শব্দ উচ্চারিত হতে দেখা গিয়েছে, যা সম্পূর্ণ অপ্রত্যাশিত। তিনি আরও বলেন, কোন মেয়েকে মুগ্ধ করার এটা দারুন এক উপায়।আর পুরুষ ডলফিন ঠিক এই পথটাই বেছে নিয়েছে সঙ্গীকে মুগ্ধ করতে।

সমুদ্রের ঢেউ কাটিয়ে ডলফিন কখনও শূন্যে লাফিয়ে ওঠে কখনও আবার পানির মধ্যে ডুবে যায়-এই দৃশ্য সবার কাছেই পরিচিত।নাচের সঙ্গে তারা বিচিত্র শব্দ করে গানও গায়। তবে এবারই প্রথম গবেষকরা জানলেন, প্রেমিকাকে উপহার দিতেও পছন্দ করে ডলফিনেরা। অস্ট্রেলীয় হাম্পব্যাক পুরুষ ডলফিনকে নিয়ে তথ্যচিত্র বানাতে গিয়ে ব্যাপারটা ধরা পড়েছে গবেষকদের ক্যামেরায়। সেখানে দেখা যায়, একটি পুরুষ ডলফিন সাগরের তলদেশ থেকে ঠোঁট দিয়ে স্পঞ্জ তুলছে, তারপর তা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে মেয়ে ডলফিনটির দিকে। গবেষকরা বলছেন,পুরুষ ডলফিনদের মধ্যে এভাবেই হয়তো সঙ্গীকে খুশি করার প্রথা প্রচলিত রয়েছে। তবে তারা নিশ্চিত নন,উপহার পেয়ে সঙ্গীরা আদৌও খুশি হয় কি-না। -এবিসিনিউজ,ম্যাসাবল