বৃহস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

নির্দিষ্ট সময়েই হবে পঞ্চায়েত ভোটঃ মুখমন্ত্রী

News Sundarban.com :
নভেম্বর ৬, ২০১৭
news-image

প্রথমে ভেবে ছিলেন পঞ্চায়েত এগিয়ে আনবেন । এখন পঞ্চায়েত ভোটের দিনক্ষণ স্থির করে ফেলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় । বলেছেন, নির্দিষ্ট সময়েই হবে পঞ্চায়েত ভোট । বামেদের জাঠা এবং মুকুল আতঙ্কই তাকে এই সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য় করেছে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল ।
তাদের মতে, সংবিধান সংকট নাকি অন্য কোনও কারণ রয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পঞ্চায়েত ভোট নিয়ে নয়া সিদ্ধান্তে । মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আগেই জানিয়ে ছিলেন, তিনি পঞ্চায়েত ভোট আগিয়ে আনতে চান । এই ভোট-পর্ব শীতের সময় হোক এমনটাই চেয়েছিলেন তিনি । কিন্তু হঠাৎ নবান্নে বৈঠক ডেকে তিনি সিদ্ধান্ত বদল করেছেন। রাজ্য সরকারের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, এবার সময়েই হবে ভোট। কিন্তু কেন মমতা পিছু হটলেন ? কেন তিনি সময়মতই ভোট করার পক্ষেই সহমত হলেন । তা নিয়েই এখন চর্চা শুরু হয়েছে । সম্প্রতি তিনি পঞ্চায়েত দফতরের কাছে জানতে চেয়েছিলেন ভোটের দিনক্ষণ নিয়ে । পঞ্চায়েত দফতরের সেই রিপোর্টই মুখ্যমন্ত্রীর মত পরিবর্তনে সহায়ক হয় । পঞ্চায়েত দফতর মমতাকে রিপোর্ট দেয়, আগে ভোট হলে সংবিধান সংকট দেখা দেবে । নতুন বোর্ড গঠন করার জন্য চার মাসেরও বেশি সময় অপেক্ষা করতে হবে । তবে এই বিষয়ে রাজনৈতিক মহলের একটা অংশ মেন করেন যে, মুকুল রায়ের দল ছাড়ার পরে তৃণমূল সুপ্রিমো বুঝে উঠতে পারছে না, মুকুল অনুগামীরা ঠিক কতটা ক্ষতি করছে তৃণমূলের সংগঠনকে। তাই তৃণমূল সুপ্রিমোর এই নতুন সিদ্ধান্ত ।
পঞ্চায়েত আইনেই রয়েছে, বিগত বোর্ডের পাঁচ বছরের মেয়াদ সম্পূর্ণ না হলে, সেই বোর্ড ভাঙা যাবে না । ফলে ফেব্রুয়ারি মাসে ভোট করে নিলেও নতুন বোর্ড গঠনের জন্য জুলাই পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে । স্বাভাবিকভাবেই জটিলতা বৃদ্ধি পাবে নতুন বোর্ড গঠনে । সেই জটিলতা এড়াতেই শেষপর্যন্ত সিদ্ধান্ত বদল করেন মমতা । তিনি শীতকালে ভোটের আশা দূরে সরিয়ে নির্দিষ্ট সময়েই ভোটে রাজি হন । নিয়ম হল, ২০১৩ সালের পঞ্চায়েত ভোটের পর যেদিন বোর্ড গঠন হয়েছে, ২০১৮ সালে সেই তারিখের আগে ভোট করতে হবে ।