শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ডায়মন্ড হারবারে গলায় ছুরি ঠেকিয়ে সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রীকে গণধর্ষণ

News Sundarban.com :
অক্টোবর ২৪, ২০১৭
news-image

সপ্তম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে গণধর্ষণের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল এলাকায়। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগণার ডায়মন্ড হারবার থানার বাসুলডাঙার দোঘরিয়া গ্রামে। বৃহস্পতিবার রাতে বাড়ি ফাঁকা থাকার সুযোগ নিয়ে স্থানীয় তিন যুবক ওই ছাত্রীর বাড়িতে ঢুকে গলায় ধারালো ছুরি ঠেকিয়ে একের পর এক ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ। ধর্ষণের পর কাউকে কিছু বললে প্রাণে মারার হুমকিও দেয় অভিযুক্তরা। এ বিষয়ে রবিবার থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে ।পলাতক তিন অভিযুক্ত ।
স্থানীয় বারদ্রোণ হাইস্কুলের সপ্তম শ্রেণীর নির্যাতিতা ছাত্রীর বাবা বছর খানেক আগে মারা গিয়েছেন। সংসার চালানোর তাগিদে তার মা কলকাতায় পরিচারিকার কাজ করেন। কালীপূজোর দিন কাজের চাপ বেশী থাকার কারনে বাড়ি ফিরতে পারবেন না বলেই মেয়েকে বলে গিয়েছিলেন তিনি। আর সেই দিন রাত সাড়ে এগারোটা নাগাদ স্থানীয় তিন যুবক চড়াও হয় ওই ছাত্রীর উপর। তাকে একা ঘরে পেয়ে গলায় ধারালো ছুরি ঠেকিয়ে একের পর এক ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ। ধর্ষণের পর এ বিষয়ে কাউকে জানালে প্রাণে মারার হুমকি ও দিয়ে যায় তারা। পরের দিন মা কাজ থেকে বাড়ি ফিরলে সব ঘটনা মাকে জানায় ওই নির্যাতিতা কিশোরী। মেয়ের মুখে ঘটনার কথা শুনে মেয়ে কে নিয়ে স্থানীয় বাসুলডাঙা গ্রাম পঞ্চায়েতের সিপিএম সদস্য লাটু সরদারের কাছে জানান নির্যাতিতার মা। সমগ্র বিষয়টি শুনে ওই পঞ্চায়েত সদস্য নিজেদের মধ্যে একটা মীমাংসা করিয়ে দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু এরপরে ও ওই পরিবারের উপর নানাভাবে হুমকি আসতে থাকে। অবশেষে রবিবার রাতে ডায়মন্ড হারবার থানায় এ বিষয়ে অভিযোগ দায়ের করেন নির্যাতিতার পরিবার।