শুক্রবার, ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কোটি টাকায় বিক্রি টাইটানিকের যাত্রীর চিঠি

News Sundarban.com :
অক্টোবর ২৩, ২০১৭
news-image

১০ এপ্রিল ১৯১২। স্ত্রী মেরি অ্যালিসকে সঙ্গে নিয়ে ইংল্যান্ডের সাউদাম্পটন থেকে টাইটানিকে চেপেছিলেন আলেকজান্ডার অস্কার হোলভার্সন। জাহাজের পরিবেশ, সাজসজ্জা, আয়োজন, খাবার-দাবার— সব কিছুই মুগ্ধ করেছিল আলেকজান্ডারকে। টাইটানিকের সঙ্গে আবেগ-উচ্ছ্বাসের ঢেউয়ে ভেসে গিয়েছিলেন তিনিও।

জাহাজের ২২০০ যাত্রীর মতো আলেকজান্ডারও জানতেন না এই সফর মাঝপথেই থেমে যাবে! টাইটানিক যে দিন (১৪ এপ্রিল, ১৯১২) ডুবে যায় অতলান্তিকের অতল তলে, তার ঠিক আগের দিন মাকে চিঠি লেখেন আলেকজান্ডার।

সেই চিঠিতে লেখা ছিল, “যদি সব ঠিকঠাক থাকে, তা হলে বুধবারেই নিউ ইয়র্কে পৌঁছে যাব আমরা।” চিঠিতে টাইটানিকের খাবার, স্বাচ্ছন্দ্য নিয়েও লিখেছিলেন তিনি। পেশায় মিনেসোটার সেলসম্যান আলেরজান্ডার ওই চিঠিতে আরও লেখেন, তিনি আমেরিকার তথা বিশ্বের অন্যতম ধনী ব্যবসায়ী জন জেকবের সঙ্গে বসে আড্ডা মারছেন। আরও লেখেন, “ভাবা যায়, এক জন এত ধনী ব্যবসায়ীর সঙ্গে সময় কাটাচ্ছি! এত টাকার মালিক, অথচ সাধারণ মানুষের মতোই আচরণ তাঁর।”

না, সব কিছু ঠিকঠাক থাকেনি। নিউ ইয়র্কেও পৌঁছনো হয়নি আলেজান্ডরের। তার আগেই ১৪ এপ্রিলে টাইটানিক ডুবে যায়। ১৫০০ হতভাগ্য যাত্রীদের মধ্যে ছিলেন আলেকজান্ডারও। তবে সেই দুর্ঘটনায় তাঁর স্ত্রী অ্যালিস বেঁচে যান। মাকে লেখা আলেকজান্ডারের সেই চিঠি বিক্রি করে দেয় তাঁর পরিবার। সেই চিঠিই শনিবার রেকর্ড দরে নিলাম হল লন্ডনে। দর উঠেছিল ১২৬,০০০ পাউন্ড। বাংলাদেশির টাকায় মুদ্রায় যা এক কোটিরও বেশি। -আনন্দবাজার