বুধবার, ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

মন্দির ভেঙেই তাজমহল বানানো হয়েছে:বিনয় কাটিয়ার

News Sundarban.com :
অক্টোবর ২১, ২০১৭
news-image

শাহজাহানের প্রেমের সৌধ তাজমহল নিয়ে বিতর্ক থামছেই না। এতে নতুন মাত্রা যোগ করলেন সমাজবাদী পার্টির (সপা) নেতা আজম খান। তার আশঙ্কা, বাবরি মসজিদের মতো ধ্বংস হতে পারে তাজমহলও।

সম্প্রতি উত্তর প্রদেশের বিজেপি (ভারতীয় জনতা পার্টি) বিধায়ক সঙ্গীত সোম বলেছেন, ‘তাজমহল ভারতীয় সংস্কৃতিতে কলঙ্কের চিহ্ন।’ তাজমহলের নাম বদলে ‘তেজো মহল’ করার দাবি তুলেছেন বিজেপি সাংসদ তথা বিশ্ব হিন্দু পরিষদের নেতা বিনয় কাটিয়ার। তার দাবি, ‘মন্দির ভেঙেই তাজমহল বানানো হয়েছে।’

গত বুধবার বিজেপির আরেক নেতা সুব্রামানিয়াম স্বামী দাবি করেছেন, যে জমিতে তাজমহল দাঁড়িয়ে আছে সেই জমিটি জয়পুরের রাজাদের কাছ থেকে ছিনিয়ে নিয়েছিলেন মুঘল সম্রাট শাহজাহান। তার ভাষ্য, ‘আমার হাতে এমন নথি এসেছে, যা থেকে স্পষ্ট যে জয়পুরের রাজা–মহারাজাদের তাজমহলের জমিটি বেচতে বাধ্য করেছিলেন শাহজাহান। ক্ষতিপূরণ বাবদ সেই রাজাদের ৪০টি গ্রাম দেওয়া হয়েছিল। যাকে কোনোভাবেই ওই জমির দামের সঙ্গে তুলনা করা যায় না।’

তিনি আরও বলেন, ‘নথিতে আরও দেখা যাচ্ছে, ওই জমিতে একটি মন্দির ছিল। কিন্তু মন্দির ভেঙেই তাজমহল বানানো হয়েছিল, তা অবশ্য স্পষ্ট নয়।’ শিগগিরই ওই নথি গণমাধ্যমে প্রকাশ করবেন বলেও জানিয়েছেন স্বামী।

 

তাজমহল নিয়ে বিজেপি নেতাদের এসব মন্তব্যের পরই আশঙ্কার কথা প্রকাশ করেন আজম খান। সমাজবাদী পার্টির এই নেতা বলেন, ‘যদি বাবরি মসজিদ গুঁড়িয়ে দেওয়া যায়, তা হলে দেশে যেকোনো সৌধই ভেঙে ফেলা হতে পারে। এই পরিস্থিতিতে যেকোনো দিন তাজমহল ধ্বংস হয়ে যেতে পারে। এতে আশ্চর্য হওয়ার কিছু নেই। দেশের কোনও সৌধই এখন নিরাপদ নয়।’

এ প্রসঙ্গে আজম খান আরও বলেন, ‘রাম মন্দিরের নামে যারা বাবরি (মসজিদ) ভাঙতে পারে, তারা সবই করতে পারে। তাজের আন্তর্জাতিক খ্যাতি রয়েছে বলেই ওই সৌধ এখনও দাঁড়িয়ে রয়েছে।’

তাজমহল নিয়ে বিজেপি নেতা সঙ্গীত সোমের মন্তব্যের পরই ভারতজুড়ে শুরু হয় আলোচনা-সমালোচনা। এ নিয়ে অস্বস্তিতে পড়ে কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন বিজেপি। তখন আজম খান বলেছিলেন, ‘শুধু তাজমহল কেন, সংসদ ভবন, রাষ্ট্রপতি ভবন, লালকেল্লাও গুঁড়িয়ে দেওয়া হোক। কারণ সেগুলোও দাসত্বের প্রতীক। বহন করছে গোলামির ইতিহাস।’

বিধায়কের ব্যক্তিগত মন্তব্য বলে সে যাত্রায় দায় এড়িয়েছেন বিজেপি নেতৃত্ব। এমন মন্তব্যের জন্য কারণ দর্শাতেও বলা হয় সোমকে। এরপর স্বয়ং উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথও বলেন, ‘কে তাজমহল গড়েছেন সেটি বড় কথা নয়। ভারতীয় শ্রমিকদের ঘাম ও রক্তে তৈরি হয়েছে তাজমহল।’

এদিকে, তাজের ছবি টুইট করেছে বামশাসিত কেরালা রাজ্যের পর্যটন দফতর। অনেকের প্রশ্ন, ‘কেরালা সরকার কি উত্তর প্রদেশ সরকারকে ‘ট্রোল’ করছে?’ সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া ও আনন্দবাজার