বুধবার, ২৫শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

মৃত্যুর চার ঘণ্টা পরেও মৃতদেহ পড়ে রইল পাঁশকুড়ার ফুটপাতে

News Sundarban.com :
অক্টোবর ১০, ২০১৭
news-image

মৃত্যুর চার ঘণ্টা পরেও মৃতদেহ পড়ে রইল পাঁশকুড়ার ফুটপাতে। অমানবিক ঘটনাটি ঘটেছে পাঁশকুড়া স্টেশনের ৪০০ মিটারের মধ্যে৷

স্থানীয় সূত্রে খবর, মদন গোপাল দাস (৫৮) প্রতিদিনের মতো এদিনও খড়গপুর ডিআরএম অফিসে কাজ যোগ দিতে যান৷ সন্ধ্যায় অফিস থেকে বাড়ি ফেরার জন্য ট্রেনে করে পাঁশকুড়ার উদ্দেশ্যে রওনা হন৷ স্টেশনে নেমে হাঁটাপথে ভাড়া বাড়ির উদ্দেশ্যে এগোতে থাকেন৷ সামনে গাড়ি চলে আসায় তিনি রাস্তা থেকে ফুটপাতে উঠতে যান। বৃষ্টিতে রাস্তা কর্দমাক্ত হওয়ায় পা পিছলে পড়ে যান তিনি৷ মাথায় গুরুতর আঘাত লাগে৷ মাথা থেকে রক্তপাত হতে থাকে৷ পথচলতি মানুষই প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য ডাক্তারের কাছে নিয়ে যায়। স্থানীয় চিকিৎসক মৃত বলায় মৃতদেহ রাস্তার একপাশে ফুটপাতে ফেলে চলে যায়৷ তারপর চার ঘণ্টা একইভাবে মৃতদেহ পড়ে থাকে।

উৎসুক মানুষ ভিড় জমায়৷ কেউ মৃতদেহটিকে সরানোর ব্যবস্থা করেনি৷ রেল দফতরের আধিকারিকরা ও এসে দেখে যান। ঘটনার দেড় ঘণ্টা পরে রেলের ডাক্তার আসেন তিনি ও মদনবাবুকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। তারপরে তিন ঘণ্টা কেটে গেলে ও তার মৃতদেহ স্থানান্তরিত করা হয়নি। একইভাবেই ফুটপাতেই পড়ে থাকে৷ স্থানীয় ব্যবসায়ী মুঘলেশ আজম খান জানান, ‘‘রেলের তরফ থেকে লোকজন এসে দেখে গিয়েছেন, কেউ একজন স্ট্রেচারে করে ওনাকে নিয়ে যাননি৷ আমরা মৃতদেহটিকে আলোর সামনে রেখেছি৷ খুব অমানবিক ঘটনা৷’’