বৃহস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা টিলারসনের

News Sundarban.com :
অক্টোবর ১, ২০১৭
news-image

পারমাণবিক ও ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালানোর ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্র ও উত্তর কোরিয়ার মধ্যে চলমান উত্তেজনা প্রথমবারের মতো শীতল করার চেষ্টা করেছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন। অনেকটা আগুনে জ্ল ঢেলে সৃষ্ট উত্তপ্ত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার কূটনৈতিক চেষ্টা করেছেন তিনি।

স্থানীয় সময় শনিবার টিলারসন বলেন, যুক্তরাষ্ট্র উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে ‘সরাসরি যোগাযোগ’ এর মধ্যে আছে। ওয়াশিংটন পিয়ংইয়ংয়ের সঙ্গে আলোচনা করে যাচ্ছে, যা এখনো অব্যাহত রয়েছে।

চীন সফরের সময় মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, পিয়ংইয়ংরে সঙ্গে আমাদের আলোচনার পথ খোলা আছে। আমরা অন্ধকার পরিস্থিতির মধ্যে নেই।

সাম্প্রতিক সময়ে উত্তর কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বাকযুদ্ধ ও কথা কাটাকাটি চলে। কিন্তু তাদের মধ্যে যে আলোচনার পথ খোলা আছে, সেটা তাদের জানাই ছিল না।

দু’দেশের মধ্যে সম্পর্ক ধীরে-ধীরে উন্নতি হচ্ছে জানিয়ে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী টিলারসন জানান, মার্কিন পররাষ্ট্র দফতর নিশ্চিত করেছে যে, পিয়ংইয়ংয়ের সঙ্গে আলোচনায় বসার পথ উন্মুক্ত আছে।

এদিকে, মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র হেদার নুরেট এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্র উত্তর কোরিয়ার শাসনের পতন ঘটাতে আগ্রহী নয়- এমন নিশ্চয়তা দেওয়া সত্ত্বেও উত্তর কোরিয়া পরমাণু শক্তি কমাতে কোনো আগ্রহ বা আলোচনায় বসার ইঙ্গিত দেয়নি।

যুক্তরাষ্ট্র চায় উত্তর কোরিয়া পারমাণবিক অস্ত্র কার্যক্রম থেকে সরে আসুক। কিন্তু উত্তর কোরিয়া সেই চাওয়াকে থোড়াই কেয়ার করে একের পর একে পারমাণবিক অস্ত্র ও ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালনা অব্যাহত রেখেছে। এরই মধ্যে গত ৩ সেপ্টেম্বর তারা ফের সফল ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছে।

জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্ত্বেও একের পর এক পারমাণবিক ও ক্ষেপণাস্ত্র পারীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে উ. কোরিয়া। যা নিয়ে বরবরই উদ্বিগ্ন যুক্তরাষ্ট্র। এতে চীন এবং জাপানও শঙ্কিত। এতে ওয়াশিংটন প্রায়ই পিয়ংইয়ংকে সতর্ক করে দেয়। তবে পরিস্থিতির কোনো পরিবর্তন হয় না। এবার যুক্তরাষ্ট্রের হুঁশিয়ারি নয়, বরং নরম সুরের কথায় উ. কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের মন গলে কিনা সেটা অবশ্য দেখার বিষয়।