মঙ্গলবার, ২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

লাভের দিক দিয়ে রেকর্ড গড়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড

News Sundarban.com :
সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৭
news-image

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড তাদের সোনালি অতীত পেছনে ফেলে এসেছে। গত চার মৌসুমে একবারও ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা জেতা হয়নি দলটির। এমনকি একবারও জায়গা পায়নি শীর্ষ তিনে। গত মৌসুমে ছয় নম্বরে থেকে মৌসুম শেষ করে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডের দলটি। ইউরোপা লিগের শিরোপা জেতার কল্যাণে ২০১৭-১৮ মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার টিকিট পায় হোসে মরিনহোর দলটি। মাঠের পারফরম্যান্স খুব একটা আশাব্যঞ্জক না হলেও ব্যাংক-ব্যালেন্স ঠিকই আকাশ ছুঁয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের। ২০১৬-১৭ মৌসুমে রেকর্ড সর্বোচ্চ ৫৮১ মিলিয়ন ব্রিটিশ পাউন্ড রাজস্ব আয় করেছে রেড ডেভিলরা।

গত মৌসুমে লিগে বাজে সময় কাটলেও সময়টা খুব একটা মন্দ যায়নি ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের। ইউরোপা লিগের পাশাপাশি লিগ কাপের শিরোপা জয় করে মরিনহোর দল। ক্লাবের নির্বাহী ভাইস-চেয়ারম্যান এড উডওয়ার্ড স্পোর্টিং এবং বাণিজ্যিক দিক দিয়ে ২০১৬-১৭ মৌসুমকে সফল হিসেবেই উল্লেখ করেছেন।

রাজস্ব আয় বাড়ার মূল কারণ গত মৌসুমের ১২টি স্পন্সরশিপ চুক্তি। একইসঙ্গে গত মৌসুমে বাণিজ্যিক এবং ম্যাচপ্রতি আয়ও বৃদ্ধি পায়। সার্বিকভাবে এটি ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের রাজস্ব আয়ের ওপর প্রভাব ফেলে।

২০১৫-১৬ মৌসুমে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের রাজস্ব ছিল ৫১৫.৩ মিলিয়ন ব্রিটিশ পাউন্ড। গত মৌসুমে সেটি বেড়ে ৫৮১.২ মিলিয়নে উন্নীত হয়েছে। এক্ষেত্রে ৩০ জুন পর্যন্ত হিসাব করা হয়েছে।

লাভের দিক দিয়েও রেকর্ড গড়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। গত মৌসুমে ক্লাবটির আয় ৮০.৮ মিলিয়ন ব্রিটিশ পাউন্ড। কর, সুদ ইত্যাদি বাদে যেটির পরিমাণ প্রায় ২০০ মিলিয়ন ব্রিটিশ পাউন্ড (১৯৯.৮ মিলিয়ন)। ২০১৫-১৬ মৌসুমে ম্যানইউর লাভ হয়েছিল ৬৮.৯ মিলিয়ন ব্রিটিশ পাউন্ড।