সোমবার, ১৫ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

বারুইপুরে বিজেপি নেতা খুনের ঘটনায় গ্রেফতার তিন

News Sundarban.com :
সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৭
news-image

অবশেষে পুলিশের জালে ধরা পড়ল বারুইপুর থানার সাউথ গড়িয়া এলাকার বিজেপি বুথ সভাপতি সৌমিত্র ঘোষালকে পিটিয়ে খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত তিন যুবক। ধৃতদের নাম সৌমেন সরদার, সৌরভ সরদার ও রিজ্জু সরদার। শুক্রবার দুপুর দুটো নাগাদ ভাঙড় থানার গোলপুকুর ঢালী পাড়া এলাকা থেকেই এই তিন অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার স্পেশাল অপারেশান গ্রুপ। ধৃতদের শনিবার বারুইপুর আদালতে তোলা হবে।
গত সোমবার বারুইপুর থানার সাউথ গড়িয়া এলাকার গায়েন পাড়ায় স্থানীয় বিজেপি বুথ সভাপতি সৌমিত্র ঘোষালকে পিটিয়ে খুনের অভিযোগ উঠেছিলো স্থানীয় এই তিন যুবকের বিরুদ্ধে। ঘটনার পর আটচল্লিশ ঘণ্টা কেটে গেলেও দোষীরা গ্রেফতার না হওয়ায় গত বুধবার ঐ নিহত নেতার বাড়িতে পরিবারের সাথে দেখা করতে এসে সেখানেই অবস্থান বিক্ষোভে বসে পড়েন বিজেপি নেত্রী রূপা গাঙ্গুলি। অপরাধীদের গ্রেফতারের জন্য চাপ ও বাড়াতে থাকেন পুলিশ প্রশাসনের উপর। অন্যদিকে একই দাবীতে বৃহস্পতিবার বিকেলে বারুইপুর পুলিশ সুপারের দফতরের সামনে অবস্থান বিক্ষোভে বসেন বিজেপির রাজ্য সাধারণ সম্পাদিকা দেবশ্রী চৌধুরী সহ অনান্য বিজেপি নেতা কর্মীরা। বিনা অনুমতিতে অবস্থান বিক্ষোভ করার কারনে বাইশ’জন বিজেপি নেতা কর্মীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে আটটা নাগাদ পুলিশের হাতে ধৃত বিজেপি নেতা কর্মীদের মুক্তির দাবীতে বারুইপুর থানার সামনে বিক্ষোভ শুরু করেন অন্যান্য বিজেপি কর্মীরা। অন্যদিকে রূপার অবস্থান বিক্ষোভ শুরুর প্রায় তিরিশ ঘণ্টা পর অবশ্য দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে বারুইপুর পুলিশ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সৈকত ঘোষ ও আই সি বারুইপুর অরূপ ভৌমিকের কাছ থেকে তা জানতে পেরে অবস্থান বিক্ষোভ তুলে নেন রূপা। এরপর বৃহস্পতিবার রাতেই বিজেপি নেত্রী কলকাতার উদ্দেশ্যে রওনা দেন। অন্যদিকে বারুইপুর থানার পুলিশের হাতে ধৃত বিজেপি কর্মীদের মধ্যে ছয় জনের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা করা হয়েছে। পুলিশ মিথ্যা মামলায় তাদের কর্মীদের ফাঁসিয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন দক্ষিণ ২৪ পরগনা পূর্ব জেলার বিজেপি নেতৃত্ব।