বৃহস্পতিবার, ৭ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

এই প্রথম রামরহিমের সঙ্গে দেখা করতে গেলেন পরিবারের কোনও সদস্য

News Sundarban.com :
সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৭
news-image

ধর্ষণ মামলায় জেল খাটছেন। তবে তা নিয়ে বিশেষ চিন্তিত নন গুরমিত রামরহিম সিং। বরং ডেরা সচ্চা সওদার ভবিষ্যত্ই নাকি তাঁকে কুরে কুরে খাচ্ছে। মায়ের সঙ্গে সাক্ষাতে এমনটাই জানালেন স্বঘোষিত বাবা। রোহতকের সুনারিয়া জেলে সম্প্রতি মা নসীব কৌর তাঁকে দেখতে গিয়েছিলেন। মাকে দেখামাত্রই ডেরার বর্তমান পরিস্থিতি জানতে চান তিনি। কাজকর্ম ঠিকঠাক চলছে কি না তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন। মা অবশ্য ছেলেকে বাইরের পরিস্থিতি নিয়ে কিচ্ছুটি বলেননি। বরং সবকিছু আগের মতোই চলছে বলে সান্ত্বনা দিয়েছেন। গত ২৮ আগস্ট পনেরো বছর পুরনো দুটি ধর্ষণ মামলায় ২০ বছরের হাজতবাস হয়েছে রামরহিমের। তারপর থেকেই ডেরার অন্দরে ঝামেলা শুরু হয়েছে। পুলিশি তল্লাশিতে ইতিমধ্যেই তাদের কাজকর্ম নিয়ে একাধিক চাঞ্চল্যকর তথ্য হাতে এসেছে। তারমধ্যে আবার সংগঠনের সদস্যদের মধ্যে উত্তরাধিকার নিয়ে ঝামেলা শুরু হয়েছে। ছেলের সাজা ঘোষণা হওয়ার পর নাতি জসমিত সিং ইনসানকে ডেরা প্রধান বলে ঘোষণা করেছিলেন নসিব কৌর। সেই মতো মনোনয়ন প্রক্রিয়া শুরু করতে নির্দেশ দেন সংগঠনের পরিচালন কমিটিকে। কিন্তু তাতেও সমস্যা দেখা দেয়। জসমিত নন, আসলে হানিপ্রীত ইনসানকেই বাবা উত্তরাধিকার নিয়োগ করতে চান বলে দাবি করেন সংগঠনের একদল সদস্য। ডেরা চেয়ারপার্সন বিপাসনা অবশ্য সাত তাড়াতাড়ি সিদ্ধান্ত নেওয়ার পক্ষে নন। জেলে বন্দি হলেও, রামরহিমই নেতৃত্ব দেবেন বলে জানিয়ে দেন তিনি। সেই থেকে বিষয়টি ঝুলে রয়েছে। ২৫ আগস্ট হাজতে ঢোকার পর থেকে এই প্রথম পরিবারের কোনও সদস্য রামরহিমের সঙ্গে দেখা করতে গেলেন। এর আগে শুধুমাত্র হানিপ্রীতের সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছিলেন তিনি। বিশেষ সিবিআই আদালতে সাজা ঘোষণা হওয়ার পর ছেলেমেয়েদের নিয়ে রাজস্থান চলে যান তাঁর স্ত্রী হরজিত কৌর। বর্তমানে সেখানেই রয়েছেন তাঁরা।