শুক্রবার, ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

জন্ম নিয়ন্ত্রণ নিয়ে উদ্যোগী কেন্দ্র

News Sundarban.com :
সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৭
news-image

১৩০ কোটি ইতিমধ্যেই ছাড়িয়ে গিয়েছে। কিছুতেই কমানো যাচ্ছে না দেশের জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার। এমন চলতে থাকলে জনসংখ্যার নিরিখে চিনকেও খুব শিগগিরি ছাপিয়ে যাবে ভারতবর্ষ। কিন্তু এক্ষেত্রে চিনের আগে কিছুতেই যেতে চায় না সরকার। তাই জন্ম নিয়ন্ত্রণের বিষয় নিয়ে এবার আরও সচেতন হল কেন্দ্র। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফ থেকে আনা হল নতুন দুটি গর্ভনিরোধক। যা আপাতত বিনামূল্যেই দেওয়া হবে আম জনতাকে।
প্রাথমিকভাবে ১০টি রাজ্যে লঞ্চ করা হয়েছে অন্তরা ও ছায়া নামের এই জন্ম নিয়ন্ত্রণ প্রোগ্রাম। পশ্চিমবঙ্গ, মহারাষ্ট্র, উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান, কর্নাটক, হরিয়ানা, ওড়িশা, দিল্লি, গোয়ার মতো রাজ্য এই তালিকায় রয়েছে। জানা গিয়েছে, অন্তরার মাধ্যমে একটি ইঞ্জেকশন দেওয়া হবে। যা তিনমাস পর‌্যন্ত জন্ম নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করবে। আর ছায়ার মাধ্যমে দেওয়া হবে গর্ভনিরোধক ট্যাবলেট। যা এক সপ্তাহ পর‌্যন্ত জন্ম নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করবে। আপাতত সরকারি মেডিক্যাল কলেজ ও জেলার হাসপাতালগুলি থেকে বিনামূল্যেই বিতরণ করা হবে এই ইঞ্জেকশন ও ট্যাবলেট। এর জন্য চিকিত্সক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের বিশেষ প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে।
বর্তমানে ভারতবর্ষের জনসংখ্যা প্রায় ১৩২ কোটি। যেখানে চিনের জনসংখ্যা প্রায় ১৩৭ কোটি। প্রায় পাঁচ কোটি বেশি। তবে জন্ম নিয়ন্ত্রণ নিয়ে বেশ কড়া প্রতিবেশী মুলুক। তাঁর ছিটেফোঁটাও ভারতে নেই। এমন চলতে থাকলে খুব শিগগিরি চিনকেও ছাপিয়ে যাবে ভারত। তাই এবার জন্ম নিয়ন্ত্রণ নিয়ে উদ্যোগী হয়েছে কেন্দ্র। এর জন্যই এই নতুন দুই গর্ভনিরোধক প্রকল্প চালু করা হয়েছে। এর পাশাপাশি এই বিষয়ে অনলাইন তথ্যগুলিকেও আরও আপডেট করা হচ্ছে। যাতে টোটাল ফার্টিলিটি রেট ২.১ শতাংশ হারে কমিয়ে আনা যায় এবং ২০২৫ সালের মধ্যে ভারতবর্ষের জনসংখ্যাকে একটা স্থিতাবস্থায় আনা যায়।