বৃহস্পতিবার, ২৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কোনও সম্পর্কের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক মেশানো যায় না কখনও

News Sundarban.com :
সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৭
news-image

আজ বন্ধু কাল শত্রু! এমনটা তো হরহামেশাই হচ্ছে। এখন যে খুব কাছের মানুষ, দুদিন পর তার সঙ্গে মুখ দেখাদেখি পর্যন্ত বন্ধ। এমনও হয়ে থাকে। যার সঙ্গে চুটিয়ে প্রেম করছেন কয়েকদিন পর সে সম্পর্কটা আর নাও থাকতে পারে।

 

ওপরের তিনটি সম্পর্ক কিন্তু এক নয় মোটেও! বন্ধুত্ব কিংবা অন্য কোনও সম্পর্কের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক মেশানো যায় না কখনও। দীর্ঘ দিন ধরে যার সঙ্গে মনের রসায়ন ছিল, তার সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝি বা যেকোনও কারণে আর পথ চলতে ইচ্ছে না করার অনেক কারণই থাকে। এক পর্যায়ে বিচ্ছেদ হয়। দু জনের দুটি পথ দুদিকে যায় বেঁকে।

 

এতকিছুর পরও কি ভুলে থাকা যায় সাবেক প্রেমিক কিংবা প্রেমিকাকে? সময়ের সাথে সাথে দিন অবশ্য পাল্টেছে। এখন সাবেক প্রেমিকার প্রেমিকার মধ্যে বিচ্ছেদের পরও অনেক সময় বেশ ভালো সম্পর্ক দেখা যায়। যোগাযোগ হয় মাঝে মধ্যে; দেখা আর কথাবার্তা তো হয়ই। এটাকেই বলা হচ্ছে ভালো বন্ধুত্ব।

 

সম্পর্ক সাবেক হয়ে গেলেও কিভাবে দুইজনের মধ্যে ভালো একটা বন্ধুত্বের সম্পর্ক ধরে রাখা যায় তারই কিছু নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে।

 

সাবেককে কখনই সাবেক হিসেবে বিবেচনা করার সুযোগ নেই। অতীত ভুলে বরং বর্তমানটাকেই মানা উচিত। বর্তমানের ভালো বন্ধুত্বের সম্পর্কটাকে মনে ও মেনে নেওয়া দরকার।

 

ভবিষ্যতে আবার কি হবে সে বিষয়ে মনযোগ না দেওয়াটাই উত্তম। কারণ মানুষকে বাঁচতে হয় বর্তমানে।

 

প্রাক্তন হয়ে যাওয়ার পর সেসব বিষয় আর সামনে না আনাটাই ভালো। দোষারোপ করার মানসিকতা থেকে দূরে থাকতে হবে। কার জন্য বিচ্ছেদ; কি বা কারণ- এসব নিয়ে সুন্দর বর্তমানকে নষ্ট করার কোনও মানে হয় না।

 

যখনও প্রাক্তনের সঙ্গে দেখা কিংবা সাক্ষাৎ হচ্ছে তখন প্রেমিক বা প্রেমিকা হিসেবে নয় ভালো বন্ধুত্বের সম্পর্কের কথা মাথায় রেখে খেতে যান; ঘুরতে যান। আনন্দ উপভোগ করুন।

 

যদি অতীতের কোনও কথা কখনও মনেই পড়ে যায় তবে তখন তাকে বুঝিয়ে বলুন বিষয়টি। এ নিয়ে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়বেন না।

 

একটি সম্পর্ক সাবেক হওয়ার পর সবচেয়ে বড় ব্যাপার হলো সেটি সহজে মেনে নেওয়া। বিচ্ছেদের ইতিবাচক দিকগুলো চিন্তা করা এবং সে অনুযায়ী সুন্দর ভবিষ্যতের পরিকল্পনা মানুষকে সুখী করে তুলতে ভূমিকা রাখে।